Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১১ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মাধ্যমিকে পাশের হারে রেকর্ড, প্রথম পূর্ব বর্ধমানের অরিত্র পাল

গত ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়। এ বছর মোট ১০ লক্ষ ১৫ হাজার ৮৮৮ জন পরীক্ষা দিয়েছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৫ জুলাই ২০২০ ০৯:০০
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রকাশিত হল মাধ্যমিকের ফল। —ফাইল চিত্র

প্রকাশিত হল মাধ্যমিকের ফল। —ফাইল চিত্র

Popup Close

প্রকাশিত হল এ বছরের মাধ্যমিকের ফল। সাংবাদিক বৈঠকে পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করলেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের চেয়ারম্যান কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়। পাশের হারে রেকর্ড সৃষ্টি হল এ বছর। পাশের হার আগের বছরের তুলনায় সামান্য বেড়ে হয়েছে ৮৬.৩৪ শতাংশ। ছাত্রদের মধ্যে পাশের হার ৮৯.৮৭%। ছাত্রীদের মধ্যে পাশের হার ৮৩.৪৭ শতাংশ। এ বছর মোট পরীক্ষার্থী ১০ লক্ষ ৩ হাজার ৬৬৬ জন। তার মধ্যে পাশ করেছে আট লক্ষ ৪৩ হাজার ৩০৫ জন। পাশের হার সবচেয়ে বেশি পূর্ব মেদিনীপুরে, ৯৬.৫৯ শতাংশ। পাশের হারে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে যথাক্রমে পশ্চিম মেদিনীপুর (৯২.১৬ শতাংশ) ও কলকাতা (৯১.০৭ শতাংশ)।

এ বছর ৭০০-র মধ্যে ৬৯৪ নম্বর পেয়ে মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারির অরিত্র পাল। সে মেমারি বিদ্যাসাগর মেমোরিয়াল স্কুলের ছাত্র। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দু’জন— বাঁকুড়ার সায়ন্তন গড়াই ও পূর্ব বর্ধমানের অভিক দাস। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৩। ৬৯০ নম্বর পেয়ে তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে তিন জন। তারা হল বাঁকুড়ার সৌম্য পাঠক, পূর্ব মেদিনীপুরের দেবষ্মিতা মহাপাত্র, উত্তর ২৪ পরগনার অরিত্র মাইতি। এ বছরের মাধ্যমিকের মেধা তালিকায় মোট স্থান পেয়েছেন ৮৪ জন। তবে তার মধ্যে কলকাতার কেউ নেই।

এ ছাড়া অনলাইনেও ফলাফল জানতে পারেন পড়ুয়ারা। ছাত্রছাত্রী বা তাদের অভিভাবকরা ফল দেখে নিতে পারেন এবিপি এডুকেশনের ওয়েবসাইটে। রেজাল্ট জানতে এখানে ক্লিক করবেন। এ ছাড়াও, wbresults.nic.in-সহ অন্যান্য ওয়েবসাইটেও রেজাল্ট জানা যাবে।

Advertisement

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ১ থেকে ১০ অগস্ট পর্যন্ত নিজের স্কুলে ভর্তি হতে পারবে পড়ুয়ারা। যাঁরা অন্য স্কুলে ভর্তি হতে চায়, তাদের জন্য ১১ থেকে ৩১ অগস্টের মধ্যে ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার পর পঠনপাঠন শুরু হবে।

লাইভ আপডেট:

• আগামী বছর মাধ্যমিক পরীক্ষার দিন ঘোষণা করল না পর্যদ।

• আগামী ২২ ও ২৩ তারিখ স্কুল থেকে মার্কশিট পাওয়া যাবে

• স্কুলগুলি যে ভাবে মার্কশিট দেবে, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট গাইডলাইন তৈরি হয়েছে

• মেধা তালিকায় প্রথম দশে ৮৪ জন

• তৃতীয় হয়েছে তিন জনবাঁকুড়ার সৌম্য পাঠক, পূর্ব মেদিনীপুরের দেবষ্মিতা মহাপাত্র, উত্তর ২৪ পরগনার অরিত্র মাইতি, তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৬৯০

• দ্বিতীয় হয়েছে বাঁকুড়ার সায়ন্তন গড়াই ও পূর্ব বর্ধমানের অভিক দাস, তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৩

• মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে পূর্ব বর্ধমানের অরিত্র পাল, প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৪, সে মেমারি বিদ্যাসাগর মেমোরিয়াল স্কুলের ছাত্র

• ছাত্রদের মধ্যে পাশের হার ৮৯.৮৭%, ছাত্রীদের পাশের হার ৮৩.৪৭%

• ২২ জুলাই সকাল ১০ টা থেকে দেওয়া হবে মার্কশিট।

• রাজ্যের ৪৯টি কেন্দ্র থেকে মার্কশিট তুলে দেওয়া হবে সফল পরীক্ষার্থীদের হাতে।

• পূর্ব বর্ধমানের মেমারি বিদ্যাসাগর মেমোরিয়াল স্কুলের অরিত্র পাল রাজ্যে প্রথম হয়েছে। ৭০০-র মধ্যে ৬৯৮ পেয়েছে সে

• মাধ্যমিকের ১৩৯ দিনের মাথায় ফলপ্রকাশ

• পাশের হারে রেকর্ড। ৮৬.৩৪ শতাংশ পাশ করেছে।

• মোট আট লক্ষ ৪৩ হাজার ৩০৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন এ বারের মাধ্যমিক পরীক্ষায়

• পাশের হার সবথেকে বেশি পূর্ব মেদিনীপুরে। ৯৬.৫৯ শতাংশ

• পাশের হারে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে পশ্চিম মেদিনীপুর (৯২.১৬ শতাংশ) ও কলকাতা (৯১.০৭ শতাংশ)

গত ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়। গত বারের তুলনায় এ বার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৩৩ হাজার কমলেও, ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীর সংখ্যা বেশি ছিল। এ বছর ৪ লক্ষ ৩৯ হাজার ৮৭৯ জন ছাত্র পরীক্ষায় বসে। মেয়েদের সংখ্যা ছিল ৫ লক্ষ ৭৬ হাজার ৯ জন।

পরীক্ষার হিসেবে মে মাসে ফল ঘোষণার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থতির জেরে প্রায় দু’মাস পিছিয়ে গেল ফল প্রকাশ। তা ছাড়া করোনা পরিস্থিতির জেরে মার্কশিট দেওয়ার ক্ষত্রেও কিছু রদবদল আনছে পর্ষদ। ছাত্রছাত্রীদের স্কুলে গিয়ে মার্কশিট আনার বদলে তাঁদের অভিভাবকদের হাতে মার্কশিট তুলে দেবেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে স্কুল স্যানিটাইজ করার পরেই মার্কশিট পাঠানো হবে। দিন ক্ষণ জানাবেন স্কুল কর্তৃপক্ষই।

আজ বুধবার মাধ্যমিকের ফল প্রকাশিত হবে বলে গতকালই ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরীক্ষার্থীদের আগাম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement