Advertisement
১৮ জুলাই ২০২৪
Matua Mahasangha

বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে কিছু অসাধু ব্যক্তি, কিন্তু এ বছর মেলা হবে, জানালেন শান্তনু ঠাকুর

প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর জানিয়েছেন, প্রতি বারের মতো বড় করে না হলেও মেলা আয়োজিত হবে।

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
বনগাঁ শেষ আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০২১ ১৭:১৪
Share: Save:

এই বছর বারুণী মেলা হবে। সারা ভারত মতুয়া মহাসঙ্ঘের পক্ষ থেকে এক জরুরি বৈঠকের পর এই বার্তা দেওয়া হয়েছে। কোভিড পরিস্থিতি গোটা দেশেই ক্রমে আরও খারাপ হচ্ছে। রাজ্যেও বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এর মধ্যেই শোনা যায়, গত বারের মতো এ বারেও চৈত্রমাসের শুক্লা চতুর্দশীর মেলা বাতিল করা হতে পারে। কিন্তু সঙ্ঘের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল, এই খবরটি গুজব। সরকারি নিষেধ না থাকলে, এই বছর মেলা হবে নিয়ম মতো।

শনিবার মেলার আয়োজন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে একটি বৈঠকে বসে সঙ্ঘ। সেখানে বিজেপি-র বর্তমান সাংসদ শান্তনু ঠাকুর-সহ সঙ্ঘের কর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক সেরে বেরিয়ে শান্তনু জানান, ‘‘কেউ কেউ মেলা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। বিভ্রান্ত হওয়ার কিছু নেই, এ বছর মেলা হবে। প্রতি বারের মতোই হবে। আয়োজনে কোনও খামতি থাকবে না। ভক্তদের মধ্যে এই বার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’’

প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর জানিয়েছেন, প্রতি বারের মতো বড় করে না হলেও মেলা আয়োজিত হবে। যদি এর মধ্যে কোনও সরকারি নির্দেশ না চলে আসে, তা হলে মেলা আয়োজন করবে সঙ্ঘ। তবে ভক্তদের প্রতি তাঁর বার্তা, ‘‘এ বার বাইরে থেকে ভক্তদের না আসতেই পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। মেলায় কঠোর ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথা বলা হবে। মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশও দেওয়া হবে। তবে প্রতি বছর যেমন লক্ষ লক্ষ লোক মেলায় জড়ো হন, তেমনটা হয়ত এ বারে হবে না।’’

সারা ভারত মতুয়া মহাসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক মহিতোষ বৈদ্য জানিয়েছেন, ‘‘এখনও সরকারের নির্দেশ না থাকায় মেলার প্রস্তুতি শুরু করে দেওয়া হয়েছে। সেই নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এ বার ভক্তদের হাতে প্রসাদও দেওয়া হবে। জমায়েত নিয়ে সরকারের কোনও নির্দেশ না থাকলে মেলা হবে যথাসময়েই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE