×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৩ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

উত্তরবঙ্গের প্রতিবাদের ঢেউ জেলায়

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৮ ডিসেম্বর ২০২০ ০০:০৫
নন্দীগ্রামের টেঙ্গুয়া মোড়ে বিজেপির অবরোধ। নিজস্ব চিত্র

নন্দীগ্রামের টেঙ্গুয়া মোড়ে বিজেপির অবরোধ। নিজস্ব চিত্র

সোমবার উত্তরবঙ্গে শিলিগুড়িতে বিজেপির ‘উত্তরকন্যা’ অভিযানে পুলিশি আক্রমণ ও দলীয় কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে এদিন সন্ধ্যায় তমলুক শহর সহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় মিছিল ও সড়ক অবরোধ করল বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

তমলুক শহরে শঙ্করআড়ায় হলদিয়া-মেচেদা রাজ্য সড়কে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি নেতা-কর্মীরা। বিকেল ৫টা থেকে প্রায় আধ ঘণ্টা ধরে সড়ক অবরোধের জেরে যানজট হয়। অবরোধে নেতৃত্ব দেন বিজেপির জেলা (তমলুক) সভাপতি নবারুণ নায়েক, তমলুক নগর মণ্ডল সভাপতি সুকান্ত চৌধুরী, তমলুক বিধানসভার আহ্বায়ক সৌমেন চক্রবর্তী, তমলুক নগর মণ্ডল সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন প্রামাণিক প্রমুখ। চণ্ডীপুর বাজারে নন্দকুমার-দিঘা ১১৬ বি জাতীয় সড়ক অবরোধ ও বাজার এলাকায় মিছিল করেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। নেতৃত্ব দেন বিজেপি জেলা (তমলুক)সাধারণ সম্পাদক পুলককান্তি গুড়িয়া।

কোলাঘাটের দেউলিয়ায় ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে কোলাঘাট মণ্ডল বিজেপি। কোলাঘাট থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে অবরোধ তুলে দেয়। অবরোধ কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য শেখ সাদ্দাম হোসেন, তমলুক সাংগঠনিক জেলার সম্পাদক দেবব্রত পট্টনায়েক।

Advertisement

উত্তরকন্যা অভিযানে দলীয় কর্মীদের ওপর হামলা এবং এক কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে এ দিন নন্দীগ্রাম বিজেপি নেতৃত্বের তরফে টেঙ্গুয়া এবং বিরুলিয়া বাজারে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানো হয়। নেতৃত্ব দেন বিজেপির তমলুক জেলা সাংগঠনিক সহ-সভাপতি প্রলয় পাল এবং কনভেনার বটকৃষ্ণ দাস।

বিজেপি-র জেলা (তমলুক) সভাপতি নবারুণ নায়েক বলেন. ‘‘উত্তরকন্যা অভিযান কর্মসূচিতে বিজেপি কর্মীদের উপর পুলিশের আক্রমণের প্রতিবাদে তমলুক, চণ্ডীপুর ও নন্দীগ্রাম-সহ জেলার বিভিন্ন জায়গায় মিছিল ও সড়ক অবরোধ করা হয়েছিল। মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটায় জেলার প্রতিটি এলাকায় মোমবাতি মিছিল করা হবে।’’

Advertisement