Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪

নন্দীগ্রামে স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগে দুর্নীতি, রিপোর্ট চেয়ে পাঠাল জাতীয় স্বাস্থ্য মিশন

জেলা স্বাস্থ্য দফতর ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলার অধীনে বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে দাঁতের চিকিৎসকের সহকারী (ডেন্টাল অ্যাসিস্ট্যান্ট) নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয় গত বছরের মাঝামাঝি।

নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলা কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট চাইল জাতীয় স্বাস্থ্যমিশনের রাজ্য শাখা।

নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলা কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট চাইল জাতীয় স্বাস্থ্যমিশনের রাজ্য শাখা।

আনন্দ মণ্ডল
তমলুক শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০১৯ ০২:০৫
Share: Save:

চুক্তির ভিত্তিতে ডেন্টাল আসিস্ট্যান্ট পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করেছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। কিন্তু তা নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলা কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট চাইল জাতীয় স্বাস্থ্যমিশনের রাজ্য শাখা। ওই পদে এক আবেদনকারী নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলায় ডেন্টাল অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতি হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের রাজ্য দফতরে অভিযোগ জানিয়েছিলেন। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের প্রোগ্রাম অফিসার সম্প্রতি স্বাস্থ্যজেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের কাছে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় নির্বাচিত প্রার্থীদের পরীক্ষা সংক্রান্ত নানা বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়েছেন। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগ ওঠাকে কেন্দ্র করে তদন্তের ঘটনায় আলোড়ন পড়েছে জেলার স্বাস্থ্য দফতরে। যদিও নন্দীগ্রামের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকার করেন।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলার অধীনে বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে দাঁতের চিকিৎসকের সহকারী (ডেন্টাল অ্যাসিস্ট্যান্ট) নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয় গত বছরের মাঝামাঝি। চুক্তির ভিত্তিতে ওই কর্মী নিয়োগের জন্য আবেদনপত্র চাওয়া হয়। লিখিত পরীক্ষাছাড়াও কম্পিউটার পরীক্ষা এবং ইন্টারভিউর মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা তৈরির ব্যবস্থা হয়। জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কয়েকজন আধিকারিকদের নিয়ে নিয়োগ কমিটি তৈরি হয়েছিল। অভিযোগ, যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশের পরেই এক আবেদনকারী আমিনা খাতুন নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্বজনপোষণকে কেন্দ্র করে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে স্বাস্থ্য দফতরের কাছে নালিশ জানান।

তাঁর দাবি, সরকারি নিয়মেই রয়েছে কোনও সরকারি চাকরিতে আবেদনকারী কারও কোনও আত্মীয় ওই চাকরির নিয়োগ কমিটিতে থাকতে পারবেন না। অথচ এ ক্ষেত্রে তা হয়নি। নিয়োগ কমিটিতে আছেন এমন একজনের আত্মীয় এই চাকরির আবেদনকারী।

অভিযোগ পেয়ে স্বাস্থ্য দফতরের তরফে ওই নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে তদন্ত শুরু হয়। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, স্বাস্থ্য দফতরের রুরাল হেলথ মিশনের প্রোগ্রাম অফিসার ৬ ডিসেম্বর নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্যজেলার মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিকের কাছে নিয়োগ তালিকায় থাকা প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতার শংসাপত্র, লিখিত পরীক্ষার উত্তরপত্র, কম্পিউটার পরীক্ষা ও ইন্টারভিউর ফল সংক্রান্ত বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়েছেন।

নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে স্বাস্থ্য দফতরের এমন পদক্ষেপ নিয়ে জানতে চাওয়া হলে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের স্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ তথা নন্দীগ্রাম হাসপাতালের চিকিৎসক পার্থপ্রতিম দাস বলেন, ‘‘ডেন্টাল অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়টি আমার জানা নেই। অনিয়মের অভিযোগ নিয়ে কোনও তদন্ত হচ্ছে কিনা তাও জানি না।’’ তবে তৃণমূল প্রভাবিত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারী ফেডারেশনের জেলা স্বাস্থ্য শাখার সম্পাদক সত্যরঞ্জন সাহু বলেন, ‘‘নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য জেলায় হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ডেন্টাল আসিস্ট্যান্ট নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি আমাদের নজরে আসার পরেই উপযুক্ত তদন্তের জন্য সংগঠনের তরফে দাবি জানিয়েছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE