Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৩ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

BJP: সম্মান ফেরানোর দাবি, ভরসা থাকুক, আর্জি নয়া বিজেপি সভাপতির

সংবর্ধনা মঞ্চ থেকেই তিনি বার্তা দিচ্ছেন— ভরসা রাখুন। তবে সংবর্ধনা মঞ্চ থেকে অনেকে তুলছেন অস্বস্তিকর প্রশ্নও।

নিজস্ব সংবাদদাতা
চন্দ্রকোনা রোড ও মেদিনীপুর ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ ০৬:৫৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
চন্দ্রকোনা রোডে বিজেপির সভায় দিলীপ ঘোষ ও নবনিযুক্ত জেলা সভাপতি তাপস মিশ্রের দুই পাশে ধীমান কোলে ও প্রদীপ লোধা।

চন্দ্রকোনা রোডে বিজেপির সভায় দিলীপ ঘোষ ও নবনিযুক্ত জেলা সভাপতি তাপস মিশ্রের দুই পাশে ধীমান কোলে ও প্রদীপ লোধা।

Popup Close

মঞ্চেই ক্ষোভের আঁচ। মঞ্চেই সে ক্ষোভ প্রশমনের চেষ্টা।

পশ্চিম মেদিনীপুরে বিজেপির নতুন জেলা সভাপতি হয়েছেন তাপস মিশ্র। তারপর থেকেই ভাসছেন সংবর্ধনায়। তাঁর পদপ্রাপ্তিতে যে দলের অন্দরে চোরা ক্ষোভ রয়েছে তা অজানা নয় তাপসের। তাই সংবর্ধনা মঞ্চ থেকেই তিনি বার্তা দিচ্ছেন— ভরসা রাখুন। তবে সংবর্ধনা মঞ্চ থেকে অনেকে তুলছেন অস্বস্তিকর প্রশ্নও।

‘সুশাসন দিবস’ পালন ঘিরে শনিবার সন্ধ্যায় মেদিনীপুরে বিজেপির এক কর্মসূচি হয়েছে। ছিলেন দলের সাংসদ তথা সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ, তাপস প্রমুখ। দলের জেলা সভাপতি হিসেবে উপস্থিতির ক্ষেত্রে এটাই ছিল তাপসের প্রথম কর্মসূচি। সভায় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে নতুন জেলা সভাপতি বলেছেন, ‘‘আমি আপনাদের একজন দাদা। আমার উপরে ভরসা রাখুন। অনেকের চেয়ে বয়সে আমি বড়। কেউ কেউ আমার চেয়ে বড় আছেন। প্রবীণদের পরামর্শ নেব। নতুনদের সঙ্গে নিয়ে যুদ্ধ- জয় করব। নতুন পশ্চিম মেদিনীপুর সাজিয়ে দেবো। এই সংকল্প নিচ্ছি।’’

Advertisement

সভাপতি বলছেন ভরসা রাখুন। কিন্তু সে বার্তা পৌঁচচ্ছে কি? কারণ, রবিবার চন্দ্রকোনা রোডের একটি লজে তাপসকে সংবর্ধনা দেয় বিজেপির শালবনি ও গড়বেতা বিধানসভার বিভিন্ন মণ্ডল কমিটি। সভায় দিলীপ, তাপস ছাড়াও যে দু'জন বক্তৃতা করেন তাঁরা হলেন ধীমান কোলে ও প্রদীপ লোধা। এ বার বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই ধীমান ও প্রদীপই দলের ঘোষিত প্রার্থীকে মানতে না পেরে নিজেরাই 'নির্দল' প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন। গড়বেতায় দলের ঘোষিত প্রার্থী ছিলেন মদন রুইদাস। শালবনিতে রাজীব কুণ্ডু। ধীমান শালবনি ও প্রদীপ গড়বেতা কেন্দ্রে দাঁড়িয়েছিলেন। পরে দু’জনই প্রার্থিপদ প্রত্যাহার করেন। এ দিনে মদন ও রাজীব উপস্থিত থাকলেও তাঁরা বক্তৃতা করেননি। বক্তৃতা করেন ধীমান, প্রদীপ দু'জনই। দিলীপ ও তাপসের সামনেই ধীমান বলেন, ‘‘দলে মানসিকতার খামতি ছিল। বিশ্বাসের পরিবেশ, শ্রদ্ধা ও সম্মানের পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হবে।’’ এই মন্তব্যে সভায় হাততালি পড়ে। যদিও সভাশেষে এ নিয়ে দিলীপকে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘‘আমি জানি না এরকম পরিবেশ ছিল কি না। তবে সবার জন্য জায়গা আছে পার্টিতে।’’ সভার শেষে নিজের বক্তব্যে অনড় থেকে ধীমান বলেন, ‘‘যা সত্যি সেটাই বলেছি।’’

মেদিনীপুর-চন্দ্রকোনা থেকে ফের মেদিনীপুর। এ দিন বিকেলে মেদিনীপুরে দলের জেলা কার্যালয়ে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে নতুন জেলা সভাপতিকে। জেলার নেতাকর্মীদের উদ্যোগেই ছিল এই সংবর্ধনা। বিজেপি সূত্রের খবর, বহু নেতাকেই এ দিনের সভায় দেখা যায়নি। আগে বিজেপির জেলা সভাপতি ছিলেন সৌমেন তিওয়ারি। তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয় এই পদ থেকে। নতুন সভাপতি হন তাপস। এর আগে তিনি দলের জেলা কমিটির সদস্য ছিলেন। তাপস আরএসএস- এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এক সময়ে। বছর দুয়েক আগে বিজেপিতে আসেন। বয়সে প্রবীণ নতুন জেলা সভাপতি বারবারই নবীন-প্রবীণের মেলবন্ধনে দল চালানোর কথা বলছেন। তাঁর উপর ভরসা রাখার আবেদন করছেন। কিন্তু কাজ হচ্ছে কি? এক বিজেপি নেতা বললেন, ‘‘আপাতত মিশ্র প্রতিক্রিয়াই পাচ্ছেন তাপস। দেখা যাক কী হয়।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement