Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

TMC: শুভেন্দুর জেলায় ভাঙল বিজেপি,মন্ত্রী সৌমেনের হাত ধরে তমলুকের এক ঝাঁক নেতা তৃণমূলে

বিজেপি-র জেলা সভাপতি নবারুণ নায়েকের নিজের ওয়ার্ডের দুই বুথ সভাপতি, শেখর ঘোষ এবং শুভম জানাও একাধিক কর্মী-সহ তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
তমলুক ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ২০:০৫
সৌমেন মহাপাত্রের হাত থেকে তৃণমূলের পতাকা নিচ্ছেন তমলুকের বিজেপি নেতারা।

সৌমেন মহাপাত্রের হাত থেকে তৃণমূলের পতাকা নিচ্ছেন তমলুকের বিজেপি নেতারা।
নিজস্ব চিত্র।

শুভেন্দু অধিকারীর জেলা পূর্ব মেদিনীপুরের সদর তমলুকে ভাঙন ধরল বিজেপি-তে। বৃহস্পতিবার রাজ্যের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্রের হাত ধরে তৃণমূলে ফিরলেন এক ঝাঁক নেতা-কর্মী। তাঁদের কয়েকজন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে গিয়েছিলেন বেশ কয়েক বছর আগেই। বাকিরা বিধানসভা ভোটের আগে

তমলুকের বিধায়ক তথা মন্ত্রী সৌমেনের হাত ধরে তৃণমূলে ফেরা নেতাদের মধ্যে রয়েছেন, বিজেপি-র নগর মণ্ডলের সাধারণ সম্পাদক সৌমেন চক্রবর্তী। নীলবাড়ির লড়াইয়ের সময় তিনি তমলুক বিধানসভা বিজেপি-র আহ্বায়ক ছিলেন। বিজেপি নগর মণ্ডলের নেতা বিশ্বনাথ মহাপাত্র এবং প্রাক্তন ছাত্রনেতা সাগ্নিক দাস অধিকারীও রয়েছেন এই তালিকায়। এমনকি, বিজেপি-র জেলা সভাপতি নবারুণ নায়েকের নিজের ওয়ার্ডের দুই বুথ সভাপতি, শেখর ঘোষ এবং শুভম জানাও একাধিক কর্মী-সহ বৃহস্পতিবার তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

শহর তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি বিশ্বনাথ বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন। তৃণমূলে ফিরে বলেন, “কিছু ভুল বোঝাবুঝির জেরেই দল ছেড়ে চলে গিয়েছিলাম। তবে পুরনো দলে নতুন ভাবে পথ চলা শুরু করতে চাই।’’

২০১৯-এর লোকসভা ভোটের আগে বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন সৌমেন। তিনি বলেন, ‘‘এক সময় নিচুতলা থেকে তৃণমূলের জন্য লড়াই করেছিলাম। পরে কিছুটা অভিমান থেকে বিজেপি-তে চলে যাই। তবে রাজনীতিতে চক্রব্যুহে অনেক কিছুই ঘটে। যেখান থেকে আমার উঠে আসা সেখানে ফিরেই আবার শূন্য থেকে শুরু করতে চাই।’’

Advertisement

মন্ত্রী সৌমেন বলেন, “আজ যাঁরা তৃণমূলে যোগ দিলেন, তাঁদের অনেকেই তমলুক শহরের নেতৃস্থানীয়। ওঁরা ভুল বুঝতে পেরেছেন। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে গিয়ে বীতশ্রদ্ধ হয়ে উঠেছেন। পুরসভা নির্বাচনের আগে এঁরা তৃণমূলে ফিরে আসায় দল শক্তিশালী হবে বলেই মনে করছি।’’ মন্ত্রী জানান, শুক্রবার তমলুক শহরের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে শতাধিক বিজেপি নেতা-কর্মী তৃণমূলে যোগ দেবেন।

তমলুক সাংগঠনিক জেলা সভাপতি নবারুণ বলেন, “দলবদলু সৌমেন চক্রবর্তী দীর্ঘদিন বিজেপি-র কোনও কর্মসূচিতে যোগ দিতেন না। আমরা আগেই বুঝে গিয়েছিলাম উনি তলে তলে তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।’’ কোনও দিনই বিজেপি সংগঠনের জন্য বিশ্বনাথ কোনও কাজ করেননি বলেও দাবি করেন তিনি। নবারুণ বলেন, “ওরা (তৃণমূল) স্বার্থান্বেষী নেতাদের নিয়ে যাক। তমলুকে পুরভোটে আমরাই জিতব।’’

আরও পড়ুন

Advertisement