Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

হয়েছে মেয়ে, তরুণীকে পুড়িয়ে মারার নালিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা
নাকাশিপাড়া ০৯ ডিসেম্বর ২০২০ ০৪:৩৮
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

কন্যাসন্তানের জন্ম মেনে নিতে পারেনি শ্বশুরবাড়ির লোকজন। সেই থেকে পরিবারে অশান্তি। তার জেরেই ঘুমন্ত তরুণীর গায়ে আগুন ধরিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠলো শ্বশুরবাড়ির ছয় সদস্যের বিরুদ্ধে। নদিয়ার নাকাশিপাড়ার শালিকগ্রাম এলাকায় গত রবিবার ওই ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ বছর তেইশের সুরজিনা বিবি হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। নাকাশিপাড়ায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁর বাব আকুল মণ্ডল।

রুকুনপুর গ্রামের বাসিন্দা সুরজিনার সঙ্গে তিন বছর আগে শালিকগ্রামের বাসিন্দা পেশায় তাঁতের শাড়ির ব্যবসায়ী আজিম শেখের বিয়ে হয়। তরুণীর পরিবারের দাবি, বিয়ের সময় পাত্রপক্ষ যা কিছু দাবি করেছিল সবই দেওয়া হয়। কিন্তু কিছুদিন পরেই মোটরবাইক চেয়ে সুরজিনার উপরে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে আজিম শেখ ও তার পরিজনেরা এরই মধ্যে সুরজিনার কন্যাসন্তান হওয়ায় অত্যাচার আরও বেড়ে যায় বলে তাঁর বাবা-র দাবি।

অভিযোগ, রবিবার রাতে সুরজিনা ঘুমিয়ে থাকার সময় শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে তাঁকে শক্তিনগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আকুল মণ্ডলের কথায়, ‘‘নাতনির জন্মের পরেই আমার মেয়ের উপরে ওদের অত্যাচার বেড়ে যায়। আমি ওদের কড়া শাস্তি চাই। আমার মেয়ে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছে। হাসপাতাল শয্যায় যন্ত্রণায় ছটফট করতে-করতে যারা ওর গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে তাদের সকলের নাম জানিয়েছে।’’

Advertisement

নাকাশিপাড়া থানার পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগ পাওয়ার পরেই তদন্ত শুরু হয়েছে। কিন্তু নির্যাতিতা সকলের নাম বলার পর কেন এখনও কাউকে ধরা হল না সেই প্রশ্ন উঠছে।

আরও পড়ুন

Advertisement