Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

যাত্রীদের থেকে ‘অনুদান’ দাবি বাস মালিকদের

মোড়ের মাথায় বাস মালিকরা দাঁড়িয়ে থেকে যাত্রীদের অনুদানের বিষয়ে বোঝাবেন। অনুদান না পেলে যে বাস চালানো অসম্ভব তাও যাত্রীদের বোঝানো হবে।

নিজস্ব সংবাদদাতা 
বহরমপুর ০১ জুলাই ২০২১ ০৫:৫৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
দীর্ঘ দিন পথে নামেনি। ঠেলে চালু করতে হচ্ছে বাস। বহরমপুরে।

দীর্ঘ দিন পথে নামেনি। ঠেলে চালু করতে হচ্ছে বাস। বহরমপুরে।
ছবি: গৌতম প্রামাণিক।

Popup Close

শর্ত সাপেক্ষে আজ বৃহস্পতিবার থেকে বাস-অটো চালানোর অনুমতি মিলেছে। ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস-অটো চালতে পারবে বলে ইতিমধ্যে রাজ্য সরকার নির্দেশিকা দিয়েছে। কিন্তু ভাড়া না বাড়ানোয় মুর্শিদাবাদের বেসরকারি বাস মালিকেরা যাত্রীদের কাছ থেকে অনুদান চেয়ে আবেদন জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

অনুদান চাওয়ার নাম করে কার্যত ভাড়া বাড়ানোর পথে এগোচ্ছেন মুর্শিদাবাদের বাস মালিকেরা। যদিও বাস মালিকদের দাবি, বাসের বিমা থেকে যন্ত্রপাতির খরচ বেড়ে দ্বিগুন হয়েছে। ডিজেলের দাম লিটার পিছু ৯২ টাকা ছাড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস চালানো অসম্ভব। তাই যাত্রীদের কাছ থেকে অনুদান চেয়ে লিফলেট দেওয়া হবে। ইতিমধ্যে যাত্রীদের কাছ থেকে অনুদান চেয়ে বাসে স্টিকার লাগাতে শুরু করেছেন বাস মালিকরা। এছাড়া আজ বাসে ওঠা যাত্রীদের হাতে অনুদান চেয়ে লিফলেট বিলি করবেন। তাঁদের দাবি, যাত্রীরা অনুদান দিতে চাইলে বাস চালানো সম্ভব হবে।

মুর্শিদাবাদ বাস ওনার্স কাউন্সিলের সম্পাদক তপন অধিকারী বলেন, ‘‘২০১৮ সাল থেকে বাস ভাড়া বাড়েনি। অন্যদিকে বাসের বিমা থেকে শুরু করে যন্ত্রপাতির খরচ দ্বিগুন হয়েছে। ডিজেলের দাম লিটার পিছু ৯২ টাকা অতিক্রম করেছে। এত খরচ করে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে পুরনো ভাড়ায় বাস চালানো অসম্ভব। তাই আমরা যাত্রীদের কাছে অনুদান চেয়ে আবেদন জানাব।’’ তাঁর দাবি, ‘‘লকডাউন পর্বে বাস ট্রেন ছাড়া প্রায় সব ধরনের যানবাহন চলছে। লোকজন বাসের থেকে প্রায় দ্বিগুন ভাড়া দিয়ে অন্য যানবাহনে যাতয়াত করছেন। তাই আমরা যাত্রীদের কাছে অনুদান চেয়ে আবেদন জানাচ্ছি। কোথাও জোর জুলুম করা হবে না। মানুষ স্বেচ্ছায় অনুদান দিলে বাস চালাতে পারব। অন্যথায় বাস বন্ধ রাখা ছাড়া উপায় থাকবে না।’’

Advertisement

ফেডারেশন অব বাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের মুখপাত্র শান্তনু সাহা বলেন, ‘‘আমরা করোনা সুরক্ষাবিধি মেনেই বাস চালাব। কিন্তু সরকার ভাড়া না বাড়ানোয় আমরা খুব কষ্টে আছি। এভাবে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাস চালানো অসম্ভব। তাই আমরা জনগণের কাছে অনুদান চাইছি।’’

বাস মালিকেরা জানান, আজ বৃহস্পতিবার সকালে বহরমপুর বাস টার্মিনাস ছাড়া ডোমকল, জলঙ্গি, আমতলা, ইসলামপুরের মতো বিভিন্ন মোড়ের মাথায় বাস মালিকরা দাঁড়িয়ে থেকে যাত্রীদের অনুদানের বিষয়ে বোঝাবেন। অনুদান না পেলে যে বাস চালানো অসম্ভব তাও যাত্রীদের বোঝানো হবে।

যদিও মুর্শিদাবাদের আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিক সিদ্ধার্থ রায় বলেন, "বাস মালিকদের বলব সরকারি নিয়ম কানুন মেনে অতিমারীর সময়ে মানুষকে পরিষেবা দিন। আপনাদের দাবি দাওয়া থাকলে আমাদের জানান। আমরা নির্দিষ্ট জায়গায় পৌঁছে দেব।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement