Advertisement
২০ জুন ২০২৪
Corruption

টিনার বিরুদ্ধেও উঠল অভিযোগ, দুষলেন তাপসকে

সোমবার সেই টিনার বিরুদ্ধেই একগুচ্ছ দুর্নীতির অভিযোগ সংবলিত একটি পোস্টার সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে, যার নীচে লেখা ‘নদিয়া জেলার তৃণমূল স্তরের সাধারণ দলীয় কর্মীরা’।

তাপস সাহাকে দুষে চলেছেন টিনা।

তাপস সাহাকে দুষে চলেছেন টিনা। — ফাইল চিত্র।

সাগর হালদার  
তেহট্ট শেষ আপডেট: ২৮ মার্চ ২০২৩ ০৮:৪১
Share: Save:

দলের বিধায়ক তাপস সাহার বিরুদ্ধে বার বার দুর্নীতির অভিযোগে সরব হয়েছেন নদিয়া জেলা পরিষদে তৃণমূল সদস্য টিনা ভৌমিক সাহা। বিজেপির তরুণজ্যোতি তিওয়ারি পর পর অডিয়ো ক্লিপ প্রকাশ্যে এনে সম্প্রতি তেহট্টের তৃণমবল বিধায়কের বিরুদ্ধে স্কুলে এবং দমকলে চাকরির জন্য টাকা চাওয়ার অভিযোগ তোলার পরে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে ফের তাপসের নামে দুর্নীতির অভিযোগ করেন টিনা।

সোমবার সেই টিনার বিরুদ্ধেই একগুচ্ছ দুর্নীতির অভিযোগ সংবলিত একটি পোস্টার সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে, যার নীচে লেখা ‘নদিয়া জেলার তৃণমূল স্তরের সাধারণ দলীয় কর্মীরা’। টিনার দাবি, “এ সব তাপস সাহাই করিয়েছেন।” তাপস পাল্টা বলেন, “আমি ওই পোস্টার সম্পর্কে কিছুই জানি না। আমার চোখেও পড়েনি। তবে ওই ভদ্রমহিলা একশো শতাংশ তোলাবাজ, দুর্নীতিবাজ, ঠগ।”

সেই পোস্টার। নিজস্ব চিত্র

সেই পোস্টার। নিজস্ব চিত্র

ঘটনাচক্রে, এ দিনই তাপসের বিরুদ্ধে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলে মামলা করার অনুমতি দিয়েছে হাই কোর্ট। সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া পোস্টারে অভিযোগ করা হয়েছে, প্রাথমিক স্কুলে নিয়োগের দুর্নীতিতে জড়িত পলাশিপাড়ার বিদায়ক তথা রাজ্য প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান মানিক ভট্টাচার্যের ‘ঘনিষ্ঠ’ টিনা। দাবি করা হয়েছে, মানিক ও তাঁর ছেলেকে দিয়ে প্রাথমিকে ৪৭ জনের চাকরি করিয়ে প্রায় ১২ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন টিনা।

এ ছাড়াও টিনা ও তাঁর স্বামীর আয়কর-বহির্ভূত বিপুল সম্পত্তি রয়েছে বলেও পোস্টারে দাবি করা হয়েছে। সেই দাবি অনুযায়ী, চিনার তিনটি লাক্সারি গাড়ি ও কলকাতায় ওএকাধিক ফ্ল্যাট রয়েছে। এ ছাড়া রয়েছে প্রায় দুই কেজি সোনা। ছেলের জন্মদিনে তিনি সোনার জরির কাজ করা শাল উপহার দিয়েছেন। বাড়ির পুজোর সমস্ত বাসন তিনি সোনা ও রুপোয় বানিয়ে রেখেছেন। পাঁচ বছরে এত সম্পত্তি তাঁর কী করে হল, সেই প্রশ্ন তোলা হয়েছে বেনামি পোস্টারে। মাধ্যমিকে ও উচ্চ মাধ্যমিকে তৃতীয় বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে এবং টেট পাশ না করেও টিনা প্রাথমিক স্কুলের চাকরি পেয়েছেন বলে ওই পোস্টারে দাবি করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, প্রাথমিকে স্কুলে টিনার শিক্ষকতা নিয়ে আগে বার বার সরব হয়েছেন তাপসও।

টিনা অবশ্য সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। বিশদ ব্যাখ্যায় না গিয়ে তিনি বলেন, “ছেলের জন্মদিনে সোনার জরির কাজ করানো শাল নয়, উত্তরীয় পরানো হয়েছিল। তা-ও সেটি একটি অনুষ্ঠান থেকে পাওয়া।” এর পিছনে তাপস রয়েছেন দাবি করে তাঁর হুঁশিয়ারি, “সাংবাদিক সম্মেলন করে সমস্ত তথ্য দেখিয়েছিলাম। আবার দেখাব, তখন ওঁর মুখ পুড়বে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Corruption Tapas Saha Recruitment Scam
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE