Advertisement
২৫ জুলাই ২০২৪

পরেশের সমর্থনে মিছিলে পার্থ

পরেশ বলেন, “সবাই মিলেই আমরা প্রচার শুরু করেছি। তৃণমূলের কেউই বসে নেই।”

প্রতীকী চিত্র

প্রতীকী চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কোচবিহার শেষ আপডেট: ২৭ মার্চ ২০১৯ ০৩:১৪
Share: Save:

দলের প্রার্থী পরেশ অধিকারীর জন্য মিছিলে হাঁটলেন কোচবিহারের বিদায়ী তৃণমূল সাংসদ পার্থপ্রতিম রায়। দল এ বারে পার্থকে টিকিট দেয়নি, দিয়েছে পরেশকে। দল সূত্রে খবর, তাঁর অনুগামীদের মধ্যে তা নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে এখনও। পার্থবাবুকেও সেভাবে প্রচারে দেখা যাচ্ছিল না বলে অনেকের দাবি। সোমবার রাতে জিরাণপুর বাজারে তৃণমূলের মিছিলে নেতৃত্ব দিতে দেখা যায় পার্থবাবুকে। তাঁর বাড়ি ওই এলাকাতেই। যদিও এখন কোচবিহার শহরে থাকেন পার্থ। তিনি বলেন, “শুরুর দিন থেকেই আমি প্রচারে রয়েছি। যারা বলছেন আমাকে দেখা যাচ্ছে না তাঁরা ঠিক বলছেন না। দল পরেশ অধিকারীকে প্রার্থী করেছে। তাঁকে জয়ী করার লক্ষ্যেই প্রচার শুরু করেছি।’ পরেশ বলেন, “সবাই মিলেই আমরা প্রচার শুরু করেছি। তৃণমূলের কেউই বসে নেই।”

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার থেকে জয়ী হয়েছিলেন তৃণমূল প্রার্থী রেণুকা সিংহ। তাঁর মৃত্যুর পরে ২০১৬ সালে কোচবিহার থেকে পার্থপ্রতিম রায়কে প্রার্থী করা হয়। সে সময় তৃণমূলের কোচবিহার জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষের ঘনিষ্ঠ অনুগামী বলেই পার্থর পরিচয় ছিল। দল সূত্রে খবর, সাংসদ হওয়ার ছ’মাসের মধ্যে অবশ্য দু’জনের মধ্যে দূরত্ব বেড়ে যায়। পরে জেলা রাজনীতিতে রবীন্দ্রনাথের বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর নেতা হিসেবেই পরিচিত হন পার্থ। তাঁকে যুব তৃণমূলের কোচবিহার জেলার দায়িত্ব দেওয়া হয়। এই অবস্থায় এ বারে লোকসভার টিকিট পরেশকে দেওয়া হয়। পরেশ বাম তথা ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা ছিলেন। বাম আমলে বিধায়ক ও মন্ত্রী ছিলেন তিনি। মাস তিনেক আগে বাম দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন পরেশ। তাঁকে দল প্রার্থী করায় পার্থ’র অনুগামীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। অনেকেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ক্ষোভও উগরে দেন।

তবে টিকিট ঘোষণার দিনই যদিও পার্থ জানিয়ে দেন, দল যাঁকে টিকিট দিয়েছে সেই পরেশ অধিকারীর জন্যে তিনি মাঠে নামবেন। দলের কোচবিহার জেলা কোর কমিটির বৈঠকেও তিনি সে কথা জানিয়ে দেন। সে সময় দু-একটি মিটিংয়ে দেখা গেলেও পরের কয়েকদিন তেমন ভাবে তাঁকে দেখা যায়নি। সোমবার অবশ্য মিছিল নিয়ে পরেশ অধিকারীর সমর্থনে জিরাণপুর বাজারে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় তাঁকে। আগামী ৩ এপ্রিল কোচবিহারে প্রচার করার কথা রয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। ওইদিন লোক টানতে বৈঠকেরও ডাক দিয়েছেন তিনি।

আজ, বুধবার যুব সংগঠনের বৈঠক হবে পার্থ’র অফিসেই। তাঁর অনুগামীদের একটি অংশ অবশ্য অভিযোগ করেন, তাঁকে তেমন ভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি, তাই পুরোদমে প্রচারে নামতে পারছেন না তিনি। দল অবশ্য জানিয়েছে, আর দিন দু’য়েকের মধ্যে রাজ্য নেতারা ঢুকে পড়বেন জেলায়। সেই সময় প্রত্যেককে নিয়ে প্রচার তুঙ্গে তোলা হবে। দলের কোচবিহার জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “সবাই প্রচারে নেমেছে। প্রত্যেক বুথে বুথে প্রচারে হচ্ছে। আমরা এই কেন্দ্র থেকে পাঁচ লক্ষের বেশি ভোটে জয়ী হব।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE