Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Mamata Banerjee: মঞ্চে তিনি সতর্ক, ভিড় সেই বিধিহীন

সৌমিত্র কুণ্ডু
শিলিগুড়ি ২৫ অক্টোবর ২০২১ ০৬:০৫
খোঁজ: শিলিগুড়ি পুরসভা এলাকায় করোনা প্রতিষেধকের অগ্রগতি নিয়ে পুর প্রশাসক গৌতম দেবের কাছে জানতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী।

খোঁজ: শিলিগুড়ি পুরসভা এলাকায় করোনা প্রতিষেধকের অগ্রগতি নিয়ে পুর প্রশাসক গৌতম দেবের কাছে জানতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী।
নিজস্ব চিত্র।

শহরের মাঝে মুখ্যমন্ত্রীর বিজয়া সম্মিলনী। তাই রবিবার শিলিগুড়ির বাঘা যতীন পার্কে ভিড় নিয়ে আশঙ্কা ছিলই। আশঙ্কা ছিল কোভিড বিধি কতটা মানা হবে, তা নিয়েও। বাস্তবে দেখা গেল, বিধি শিকেয় তুলে এ দিন মানুষের ভিড় উপচে পড়েছে।

উদ্যোক্তা শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেট এবং প্রশাসনের তরফে দর্শকাসনে তিন হাজার লোক বসানোর কথা জানানো হয়েছিল। এবং কোভিড বিধি মেনেই। বাস্তবে তার দ্বিগুণ লোক হয়েছে বলে খবর। দূরত্ব বিধির কোনও ব্যাপার ছিল না দৃশ্যতই। বহু লোক মাস্ক না পরেই সেখানে গিয়েছেন। যাঁরা পরে গিয়েছেন তাঁদেরও ৭০ শতাংশ থুতনির নীচে বা নাকের নিচে মাস্ক নামিয়ে রেখেছেন। যা দেখে সেখানে উপস্থিত অনেক চিকিৎসকই উদ্বেগ প্রকাশ করলেন। মুখ্যমন্ত্রী সতর্ক বার্তা দিয়েছেন, ‘‘ডাবল ডোজ় নিয়েও কোভিড হচ্ছে। হয়তো মারাত্মক হচ্ছে না। তা সত্ত্বেও বলব, কোভিড নিয়ে এই দুই মাস সতর্ক থাকবেন।’’

রাজ্যে করোনা সংক্রমণ যে হারে বাড়ছে, উত্তরবঙ্গেও সেই প্রবণতা রয়েছে বলে বিশষেজ্ঞদের মত। তাই কোভিড বিধি মেনে চলা ভীষণ জরুরি বলেই চিকিৎসকরা মনে করছেন। মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে তাই বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘উৎসবের আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে কোভিড বিধি আমরা ভুলে গিয়েছি। এটা ভুলে যাওয়ার রেজাল্ট। যদিও এখনও বাংলায় কোভিড নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ভয় পাওয়ার কারণ নেই। কিন্তু কিছু বিধি মানতে হবে। মাস্কটা পরতে হবে।’’ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘অনেকে মাস্ক পরে না। পরলেও নাকের নীচে। এতেই সমস্যা বাড়ছে। আমি সব সময় মাস্ক পরছি। এখন কথা বলার জন্য মুখ বন্ধ করে বলতে পারব না বলে মাস্ক ছাড়া বলছি। না হলে সব সময় ব্যবহার করি।’’

Advertisement

শুরুতে অনুষ্ঠানে ঢোকার জন্য হুড়োহুড়ি দেখা গিয়েছে। ভিড় উপচে পড়ছে গেটে। মাঠে যে মণ্ডপের ব্যবস্থা হয়েছে তার মধ্যে লোক আটানো সম্ভব হয়নি। ছোট জায়গার জন্য মঞ্চের সামনে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের ঠাসাঠাসি করে দাঁড়াতে হয়েছে। আমন্ত্রিতদের তালিকায় শহরের বিভিন্ন পেশার মানুষকে ডাকা হয়েছে। চিকিৎসক থেকে ব্যবসায়ী, শিক্ষক, শহরের অনেক মানুষকে আমন্ত্রণ করা হয়েছে। তা ছাড়া দলের নেতাকর্মীরা তো ছিলেনই। শিলিগুড়ি তো রয়েইছে, উত্তরের অন্য সব জেলা থেকে অনেক নেতা এসেছিলেন। সামনের সারিতেই মাস্ক ছাড়া বসেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর কথার পর অনেককে মাস্ক বার করে পরতে তা ঠিক করতে দেখা গিয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement