Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সরানো হল গৌড়বঙ্গর রেজিস্ট্রারকে, চাঞ্চল্য

নিজস্ব সংবাদদাতা
মালদহ শেষ আপডেট: ২১ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৩:৪৭
Share: Save:

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের পদ থেকে সরানো হল সাধনকুমার সাহাকে। বৃহস্পতিবার কলকাতার অফিসে বিশ্ববিদ্যালয়ের এগজিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠক হয়। সেখানে সাধনবাবুকে সরিয়ে দায়িত্ব দেওয়া হয় ফিজিওলজি বিভাগের অধ্যাপক বিপ্লব গিরিকে। এই বদল নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মী মহলে।

Advertisement

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বছরখানেক আগে বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সাধনবাবুকে রেজিস্ট্রারের পদে বসানো হয়। তাঁর আগে পদটি শূন্য ছিল। সহকারি রেজিস্ট্রারেরাই সামলাতেন কাজকর্ম। সেই সহকারি রেজিস্ট্রারও পদত্যাগ করেছিলেন। তার পর থেকে সাধনবাবুই রেজিস্ট্রারের কাজকর্ম সামলাচ্ছিলেন। এ দিন কলকাতায় এগজিকিউটিভ কাউন্সিল কমিটির বৈঠক হয়। বৈঠক সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন শুরুতেই সাধনবাবু রেজিস্ট্রারের পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। তিনি ইস্তফা দিতেই এগজিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠকে তা গ্রহণ হয়ে যায়। আর দায়িত্ব দেওয়া হয় বিশ্ববিদ্যালয়েরই ফিজিওলজি বিভাগের অধ্যাপক বিপ্লব গিরিকে। সাধনবাবুকে একাধিকবার ফোন করা হলেও উত্তর মেলেনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্বাগত সেন বলেন, ‘‘সাধনবাবুর পরিবর্তে রেজিস্ট্রারের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিপ্লব গিরিকে।’’

এ দিন সাধনবাবুর ইস্তফা ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শূন্যপদ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অশিক্ষক পদে প্রায় ২২টি শূন্যপদ রয়েছে। তা পূরণে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। জানুয়ারি মাসের মধ্যে শূন্যপদের বিজ্ঞাপন দেওয়া হবে। তবে পুরোনো নিয়োগের নথি না মেলায় সমস্যা তৈরি হয়েছে। বৈঠক সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১১-১২ এবং ২০১৬ সালে নিয়োগ হয়েছিল। ২০১১-১২ সালের নিয়োগের নথি মিলছে না। সেই নথি খতিয়ে দেখা হবে। স্বাগতবাবু বলেন, ‘‘নিয়োগ প্রক্রিয়া সুষ্ঠ ভাবে দ্রুত সম্পন্ন করার চেষ্টা হবে।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.