Advertisement
১৩ জুন ২০২৪
sitai

উপনির্বাচনে প্রার্থী নিয়ে চর্চা সিতাইয়ে

জগদীশের ইস্তফার পরে সিতাইয়ে বিধানসভা উপনির্বাচন হবে। এ দিনই নির্বাচন কমিশন দেশের ১৩টি আসনে উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে।

—প্রতীকী ছবি।

নমিতেশ ঘোষ
কোচবিহার শেষ আপডেট: ১১ জুন ২০২৪ ০৭:৫২
Share: Save:

বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিলেন লোকসভা ভোটে সদ্য-নির্বাচিত সাংসদ জগদীশ চন্দ্র বর্মা বসুনিয়া। সোমবার বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে তিনি তাঁর ইস্তফাপত্র তুলে দেন। এ বারের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে নির্বাচিত হয়েছিলেন জগদীশ। তিনি কোচবিহার লোকসভা আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিককে ৩৯ হাজার ২৫০ ভোটে পরাজিত করেন জগদীশ। স্বাভাবিক ভাবেই তাঁকে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিতেই হত।

জগদীশের ইস্তফার পরে সিতাইয়ে বিধানসভা উপনির্বাচন হবে। এ দিনই নির্বাচন কমিশন দেশের ১৩টি আসনে উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে। সেই তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের চারটি বিধানসভা রয়েছে। উত্তরবঙ্গের রায়গঞ্জ আসনও রয়েছে। তবে সিতাই নেই। কারণ, যে আসনগুলিতে নির্বাচন হচ্ছে, সেখানকার বিধায়কেরা আগেই ইস্তফা দিয়েছিলেন।

এ দিকে, সিতাইয়ের উপনির্বাচনের আগে প্রার্থী পদ নিয়ে টানাপড়েন শুরু হয়েছে শাসকের অন্দরে। জগদীশ বলেন, ‘‘উপনির্বাচনে কাকে প্রার্থী করা হবে, তা রাজ্য নেতৃত্ব ঠিক করবেন। এখানে আমাদের কিছু বলার নেই। দল যাকে প্রার্থী করবে, আমরা তাঁকেই জয়ী করব।’’

বরাবরই সিতাই রাজ্যের শাসক দলের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত। পরিসংখ্যানও তেমনই বলছে। জগদীশ পরপর দু’বার সিতাই থেকে নির্বাচিত হন। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার আসন থেকে ৫৪ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হন বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। সেই সময় কোচবিহার লোকসভা আসনের ছ’টি বিধানসভায় পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। একমাত্র সিতাই বিধানসভায় বড় অঙ্কের ভোটে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনেও সিতাই থেকে দশ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হন জগদীশ। এ বারের লোকসভা নির্বাচনে সিতাই ২৮ হাজারের বেশি ভোটে লিড নিয়েছেন জগদীশ।

স্বাভাবিক ভাবেই ওই আসন নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে যে টানাটানি থাকবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই আসনে কাকে প্রার্থী করা হবে, তা নিয়ে জেলা তৃণমূলের মতামত দল নেবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

সেই সঙ্গে মনে করা হচ্ছে, পরামর্শদাতাকারী সংস্থার কাছ থেকেও একাধিক রিপোর্ট সংগ্রহের পরেই সিদ্ধান্ত নেবে দল। সিতাই তপশিলিদের জন্য সংরক্ষিত আসন। বর্তমানে দলের একাধিক শীর্ষ নেতৃত্ব রয়েছেন যাঁরা তপশিলি সম্প্রদায়ের। এ ছাড়া সিতাই বিধানসভাতেও তপশিলি সম্প্রদায়ের তৃণমূলের একাধিক নেতা রয়েছেন। সে ক্ষেত্রে কার ভাগ্যে শিকে ছিঁড়বে, চর্চা এখন তা নিয়েই।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

sitai TMC
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE