Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

CPIM Protest: হামলা হলে প্রতিরোধ, বার্তা বাম প্রতিবাদে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:৩৬
ত্রিপুরায় বিজেপি-র হামলার বিরুদ্ধে বামেদের প্রতিবাদ মিছিল।

ত্রিপুরায় বিজেপি-র হামলার বিরুদ্ধে বামেদের প্রতিবাদ মিছিল।

ত্রিপুরায় বিজেপির ‘তাণ্ডবের’ প্রতিবাদে এ রাজ্যে পথে নামল বামেরা। গোটা দেশ জুড়েই বৃহস্পতিবার ত্রিপুরার ঘটনার প্রতিবাদের ডাক দিয়েছিল সিপিএম। তারই অঙ্গ হিসেবে রাজ্যের নানা প্রান্তে মিছিল ও প্রতিবাদ সভা থেকে ধিক্কার জানানো হল ‘গেরুয়া সন্ত্রাসের’ বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে শামিল হয়েই সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বললেন, আক্রান্ত হলে প্রতিরোধের অধিকার সকলেরই আছে। ত্রিপুরার লড়াই গোটা দেশেরই লড়াই এবং বিজেপিকে দিল্লির ক্ষমতা থেকে হঠানোর আওয়াজও তোলা হল প্রতিবাদ কর্মসূচি থেকে।

পুরুলিয়ায় জেলা সিপিএমের আয়োজিত প্রতিবাদ মিছিলে গিয়ে এ দিন সূর্যবাবু বলেন, ‘‘ত্রিপুরায় বর্বরোচিত আক্রমণ হয়েছে। ধারাবাহিক ভাবে এই আক্রমণ চলছে। এই ফ্যাসিবাদী হামলার প্রতিবাদ চলবে। আক্রান্ত হলে প্রতিরোধের অধিকার মানুষ মাত্রেই আছে।’’ মিছিল শেষে প্রতিবাদ সভায় তাঁর অভিযোগ, বিরোধী দলনেতা মানিক সরকারকে নিজের কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। মানুষের সঙ্গে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। সূর্যবাবুর বক্তব্য, ‘‘এর প্রতিবাদের জন্য কলিজার জোর দরকার! সিপিএম কর্মীদের তা রয়েছে। মনে রাখতে হবে, ত্রিপুরার লড়াই সারা দেশের লড়াই। এ রাজ্যেও প্রতিবাদ হচ্ছে।’’ কলকাতায় সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুজন চক্রবর্তীর মন্তব্য, ‘‘জ্যোতি বসুর সেই পুরনো কথাটাই আবার বলতে হয়, বিজেপি একটি অসভ্য, বর্বরের দল!’’

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য পাল্টা বলেছেন, ‘‘এখনও কি ত্রিপুরায় সিপিএমের কোনও দফতর আছে? আমার সন্দেহ আছে! তৃণমূলকে হাওয়া দিতেই এই সব করা হচ্ছে।’’ তাঁর আরও মন্তব্য, ‘‘জানি না, ত্রিপুরায় কোন সংবাদমাধ্যমের উপরে কী হয়েছে। ত্রিপুরাকে অশান্ত করার চেষ্টা সেখানকার মানুষ পছন্দ করছে না।’’ ত্রিপুরায় গিয়েই রাজ্যের মন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বিজেপির এই মনোভাবের কড়া সমালোচনা করে বলেছেন, ‘‘কে কোন দল করবেন, সেটা তাঁর রাজনৈতিক বিশ্বাসের ব্যাপার। কিন্তু বিরোধী বলেই তাদের উপরে আক্রমণ করতে হবে, দলের অফিসে ভাঙচুর, আগুন লাগাতে হবে— এই অত্যাচার মেনে নেওয়া যায় না।’’

Advertisement
বিক্ষোভ সভায় দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।

বিক্ষোভ সভায় দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।


ত্রিপুরার উদয়পুরে সিপিআই (এম-এল) লিবারেশনের দফতরেও আগুন দেওয়া হয়েছে। ওই রাজ্যে বামেদের উপরে ‘পরিকল্পিত আক্রমণের’ প্রতিবাদে এ দিন মৌলালিতে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের কুশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছে লিবারেশন। টুইটে দলের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের আহ্বান, ফ্যাসিবাদী তাণ্ডবের প্রতিবাদে অবিলম্বে ‘ত্রিপুরা বাঁচাও’ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হোক।

আরও পড়ুন

Advertisement