×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২২ জুন ২০২১ ই-পেপার

বেআইনি মদ উদ্ধার, ধৃত ৮

নিজস্ব সংবাদদাতা 
পুরুলিয়া ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮ ০০:৫২
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

পিকনিকের মরসুম পড়তেই বেআইনি মদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে আবগারি দফতর।

বড়দিনের আগের সপ্তাহান্তে জেলা জুড়ে অভিযান চালিয়ে মোট আটজনকে বমাল গ্রেফতার করেছেন আবগারি দফতরের আধিকারিকেরা। অভিযানে তিনটি মোটরবাইক আটক করা হয়েছে। জেলা আবগারি দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মূলত বাঘমুণ্ডি, ঝালদা, কোটশিলা, পুরুলিয়া মফস্সল ও পুরুলিয়া সদর থানা এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়।

রবিবার দুপুরে আচমকাই আবগারি দফতরের ওসি দীপককুমার সাহার নেতৃত্বে অযোধ্যা পাহাড়ের পাদদেশে লহরিয়া শিবমন্দিরের কাছে দু’টি দোকানে হানা দেন আধিকারিকেরা। অযোধ্যা পাহাড়ের লোয়ার ড্যামের কাছে এই এলাকায় পর্যটকদের গাড়ি দাঁড় করানোর জায়গা রয়েছে। সেখানে একাধিক দোকান গড়ে উঠেছে। এক আধিকারিক জানান, সেখানকারই একটি দোকান থেকে রাজীব লোচন মাহাতো ও সঞ্জীব মাহাতো এবং অন্য একটি দোকান থেকে শম্ভু মাহাতোকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রথম দুজন বলরামপুরের শ্যামনগর গ্রামের বাসিন্দা। অন্যজন বাঘমুণ্ডির বাড়েরিয়া গ্রামের। তাঁদের দোকান থেকে দেশি ও বিদেশি মদ উদ্ধার হয়েছে।

Advertisement

বেআইনি মদ মজুত রাখা এবং বিক্রি করার অভিযোগে গত শুক্র এবং শনিবার আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার কোটশিলা থানা এলাকার তামাকবেড়া গ্রাম থেকে জিতু মাহাতো ও বোঙাবাড়ি গ্রাম থেকে রাজীব গড়াইকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের কাছ থেকে চোলাই মদ উদ্ধার হয়েছে।

এ দিনই কোটশিলার বড়হনকল গ্রামের বাসিন্দা দ্বিজপদ কুমারকে ঝালদা থানা এলাকার জালান রোড এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। দ্বিজপদ একটি মোটরবাইকে করে দেশি মদ নিয়ে যাচ্ছিলেন। আটক করা হয়েছে তাঁর মোটরবাইকও। শুক্রবার পুরুলিয়া মফস্‌সল থানা এলাকার গোলকুণ্ডা গ্রামের বাসিন্দা নৃপেন মাহাতো ও পুরুলিয়া সদর থানা এলাকার রেনি রোড এলাকার বাসিন্দা ভজন রাজোয়াড়কে গ্রেফতার করা হয়। এঁদের কাছ থেকেও দেশি মদ পাওয়া গিয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে দু’জনের মোটরবাইক।

Advertisement