Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Massive Fire

রামপুরহাট বাস স্ট্যান্ডে আগুন, পুড়ে ছাই অন্তত ছ’টি দোকান, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কয়েক লক্ষ টাকা

আওয়াজ শুনে বাসিন্দারা বাইরে বার হয়ে দেখেন বাসস্ট্যান্ডের পূর্বদিকের দেওয়াল সংলগ্ন অস্থায়ী দোকানগুলি দাউদাউ করে জ্বলছে। খবর যায় দমকলে। প্রায় আধঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

— Representative Image

— প্রতীকী চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
রামপুরহাট শেষ আপডেট: ০৬ এপ্রিল ২০২৪ ০৯:৫২
Share: Save:

আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেল ছ’টি অস্থায়ী দোকান। দমকলের তৎপরতায় আগুনের হাত থেকে রক্ষা পেল বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা বেশ কয়েকটি বাস। গভীর রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের রামপুরহাট বাসস্ট্যান্ডে। ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। তবে ক্ষতির পরিমাণ ১০ লক্ষ টাকারও বেশি। দমকলের প্রাথমিক অনুমান শর্টসার্কিটের কারণে আগুন লেগে থাকতে পারে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ তাঁরা একটি বিকট আওয়াজ শুনতে পান। আওয়াজ শুনে দোকানদারেরা বাইরে বেরিয়ে দেখেন বাসস্ট্যান্ডের পূর্বদিকের দেওয়াল সংলগ্ন অস্থায়ী দোকানগুলি দাউদাউ করে জ্বলছে। খবর যায় দমকলে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় রামপুরহাট দমকল বিভাগের দু’টি ইঞ্জিন। প্রায় আধঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। পুড়ে যাওয়া দোকান ঘরগুলি বেশির ভাগই ছিল টায়ার-সহ বাস, গাড়ির যন্ত্রাংশের দোকান। দমকল এবং স্থানীয়দের অনুমান, টায়ারের গ্যারেজ লাগোয়া বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার রয়েছে। সেখান থেকে শর্ট সার্কিট হয়ে দোকানে আগুন ধরে থাকতে পারে। আগুনের কারণে গ্যারেজে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন পাশের দোকানগুলিতেও ছড়িয়ে পড়ে। সিলিন্ডার ফাটার আওয়াজ পেয়েই স্থানীয়রা বাইরে বেরিয়ে এসেছিলেন। আগুনের ঘটনায় হতাহতের কোনও খবর এখনও পর্যন্ত নেই। তবে আগুনে পুড়ে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে অন্তত ছ’টি দোকানঘর। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক ১০ লক্ষ টাকারও বেশি।

প্রকৃতই শর্ট সার্কিটের জেরে আগুন, না কি এর নেপথ্যে রয়েছে অন্য কোনও কারণ, তা খতিয়ে দেখছে দমকল। পাশাপাশি, পুলিশও ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Rampurhat Fire Brigade police
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE