Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩

প্রার্থী হতে পারছেন না তিন তৃণমূল কাউন্সিলর

সংরক্ষণের গেরোয় বিরোধীদের কোনও ক্ষতিবৃদ্ধি হচ্ছে না। ১১ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত। এই ওয়ার্ড থেকে বিদায়ী পুরবোর্ডে নির্বাচিত কংগ্রেস কাউন্সিলর মহিলা ছিলেন। সেক্ষেত্রে কংগ্রেস তাঁদের জয়ী আসনে ফের আয়েষা বিবিকে প্রার্থী করলে কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

তিন তৃণমূল কাউন্সিলর এ বার পুরনো ওয়ার্ডে প্রার্থী হতে পারছেন না।— প্রতীকী ছবি।

তিন তৃণমূল কাউন্সিলর এ বার পুরনো ওয়ার্ডে প্রার্থী হতে পারছেন না।— প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নলহাটি শেষ আপডেট: ২৯ জুন ২০১৭ ০২:০১
Share: Save:

সংরক্ষণের গেরোয় নলহাটি পুরসভার বিদায়ী বোর্ডের উপপুরপ্রধান-সহ জয়ী তিন তৃণমূল কাউন্সিলর এ বার পুরনো ওয়ার্ডে প্রার্থী হতে পারছেন না। পুরসভা সূত্রেই এ খবর জানা গিয়েছে।

Advertisement

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৬টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৯, ১৪ এবং ১৫ নম্বর ওয়ার্ড তফশিলি সংরক্ষিত। ১, ৪, ৭, ৯, ১১ এবং ১৬ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত। এর মধ্যে ৯ নম্বর ওয়ার্ড আবার তফশিলি মহিলা সংরক্ষিত। বাকিগুলি সাধারণ মহিলা সংরক্ষিত আসন। কেবল ২, ৩, ৫, ৬, ৮, ১০, ১২ এবং ১৩ ওয়ার্ডগুলি সাধারণ।

পুরসভার জগধারী এলাকাটি ২০০২ সালে ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে ছিল। প্রথমবার নির্বাচনে ওই এলাকা থেকে কংগ্রেস প্রার্থী অশোক ঘোষ সিপিএম প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন। ২০০৭ সালে অশোক ঘোষ কংগ্রেসের প্রতীকে লড়ে জয়ী হন। সে বার পুরসভার উপপুরপ্রধান হয়েছিলেন অশোক ঘোষ। পরে ২০০৯ সালে অশোক ঘোষ পুরপ্রধান বিপ্লব ওঝার সঙ্গে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। ২০১২ সালের নির্বাচনে জগধারী এলাকা ১৪ নম্বর ওয়ার্ড হয়। ওই এলাকা থেকে এ বারে তৃণমূলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে অশোক ঘোষ জয়ী হয়েছিলেন। এ বার আবার জগধারী এলাকা ১৪ নম্বর ওয়ার্ড থেকে বাদ গিয়ে পুনরায় ১৫ নম্বর ওয়ার্ড হয়েছে। এবং, ওয়ার্ড সংরক্ষণের তালিকায় ১৫ নম্বর তফশিলিদের জন্য সংরক্ষিত আসন। সুতরাং, সংরক্ষণের গেরোয় এ বার অশোকবাবু পুরনো ওয়ার্ড জগধারী থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারছেন না।

তৃণমূল পরিচালিত বিদায়ী পুরবোর্ডের উপপুরপিতা ইমাম হোসেনও সংরক্ষণের গেরোয় নিজের ওয়ার্ড থেকে প্রার্থী হতে পারছেন না। ইমাম হোসেন গতবার ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে প্রতিন্দ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এটি গোপালপুর নামে পরিচিত। সেই ওয়ার্ড এ বারে সাধারণ মহিলা সংরক্ষিত। একই ভাবে বিদায়ী পুরবোর্ডের ৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত তৃণমূল কাউন্সিলর নির্মল মণ্ডল এ বার পুরনো ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন না। ৭ নম্বর এ বার মহিলা সংরক্ষিত। ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা তথা নলহাটি পুরসভার প্রাক্তন পুরপ্রধান বিপ্লব ওঝাও নিজের ওয়ার্ডে প্রার্থী হতে পারবেন না। তাঁর ওয়ার্ড এ বার মহিলা সংরক্ষিত।

Advertisement

তবে, সংরক্ষণের গেরোয় বিরোধীদের কোনও ক্ষতিবৃদ্ধি হচ্ছে না। ১১ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত। এই ওয়ার্ড থেকে বিদায়ী পুরবোর্ডে নির্বাচিত কংগ্রেস কাউন্সিলর মহিলা ছিলেন। সেক্ষেত্রে কংগ্রেস তাঁদের জয়ী আসনে ফের আয়েষা বিবিকে প্রার্থী করলে কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.