×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

বাংলার গ্রামে ‘কৃষক সুরক্ষা অভিযানে’ সঙ্ঘ

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ০৯ জানুয়ারি ২০২১ ০৪:৫৭
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

দিল্লি-হরিয়ানা সীমানায় সংসদীয় প্রতিনিধিদের পাঠিয়ে কৃষক আন্দোলনে সহমর্মিতা জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্য দিকে তাঁর রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে আগামী দিনে কৃষকদের কাছে পৌঁছনোর জন্য বড়সড় কর্মসূচি নিতে চলেছে আরএসএস ও বিজেপি।

কাল পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া যাবেন বিজেপি সভাপতি জে পি নড্ডা। নতুন কৃষি আইন নিয়ে কৃষক প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। সূত্রের খবর, এর পরেই বিজেপির পক্ষ থেকে ‘কৃষক সুরক্ষা অভিযান’ শুরু করা হবে পশ্চিমবঙ্গে। স্থির হয়েছে ৪০ হাজারেরও বেশি গ্রামে সভা করা হবে। ৫০ হাজার কৃষককে দেওয়া হবে কৃষক সুরক্ষা কার্ড। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে আমদাবাদে গত কালই শেষ হয়েছে আরএসএস-এর চিন্তন শিবির। সেখানে উপস্থিত ছিলেন নড্ডা। সূত্রের মতে, এই বৈঠকে বাংলার আসন্ন ভোট এবং কেন্দ্রীয় কৃষি নীতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে সঙ্ঘের সঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বের। আরএসএস-এর কৃষক শাখা ‘ভারতীয় কিসান সঙ্ঘ’ (বিকেএস) বাংলা-সহ গোটা দেশের ৫০ হাজার গ্রামে জনজাগরণ কর্মসূচি নিয়েছে প্রজাতন্ত্র দিবস থেকে। বিকেএস-এর সাধারণ সম্পাদক বদ্রীনারায়ণ চৌধরি বলছেন, “এই তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহার আমরা চাই না। আমরা চাইছি এই আইনে চারটি সংশোধনী যোগ করা হোক। মানুষকে আমরা নতুন কৃষি নীতি সম্পর্কে বোঝাব।”

অন্য দিকে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের জন্য আলাদা করে সমীক্ষা করেছে বিজেপি। সংশ্লিষ্ট এক নেতার কথায়, “বাংলায় ৭১ লাখ কৃষক পরিবার রয়েছে, যাদের ৯৬ শতাংশ ছোট এবং প্রান্তিক চাষি। এই কৃষক সুরক্ষা অভিযানের মাধ্যমে আমরা এই বার্তাই তাঁদের দিতে চলেছি যে পশ্চিমবঙ্গের কৃষকদের লড়াই-সংগ্রাম সম্পর্কে আমরা অবহিত। ক্ষমতায় এলে তাঁদের সমস্যার সমাধান করাটা আমাদের লক্ষ্য।” জানা গিয়েছে রাজ্যে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক লকেট চট্টোপাধ্যায়কে গোটা উদ্যোগটি খতিয়ে দেখা ও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

Advertisement
Advertisement