Advertisement
১৪ জুন ২০২৪
Attack on Nisith Pramanik convoy

দিনভর দিনহাটায় ঘুরব, দেখি তৃণমূলের কত গুলি আছে, আনন্দের বিবৃতির পরেই চ্যালেঞ্জ সুকান্তের

মঙ্গলবার সকালেই দিনহাটায় পৌঁছে যাওয়ার কথা সুকান্ত মজুমদারের। নিশীথ প্রামাণিককে সঙ্গে নিয়ে তিনি দিনহাটায় আহত বিজেপি কর্মীদের বাড়ি যাবেন, তাঁদের সঙ্গে কথা বলবেন।

Sukanta Majumdar challenges TMC as he declares BJP’s new agenda in Dinhata after attack on Nishith Pramanik’s convoy.

দিনহাটায় বিজেপির কর্মসূচি ঘোষণা করলেন রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। ফাইল ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১০:১৭
Share: Save:

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকের গাড়ি ঘিরে হামলার ঘটনায় রাজভবনের বিবৃতির পরেই দিনহাটা যাওয়ার পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। সোমবার রাতেই তিনি দিনহাটার উদ্দেশে রওনা দেবেন বলে জানান। সেই সঙ্গে তাঁর হুঙ্কার, ‘‘মঙ্গলবার দিনভর দিনহাটার রাস্তায় রাস্তায় ঘুরব, দেখি তৃণমূলের কত দুষ্কৃতী আছে।’’

মঙ্গলবার সকালেই দিনহাটায় পৌঁছে যাওয়ার কথা সুকান্তের। নিশীথকে সঙ্গে নিয়ে তিনি দিনহাটায় ঘুরবেন। শনিবারের ঘটনায় যাঁরা আহত হয়েছেন, সেই সব বিজেপি কর্মীদের বাড়ি গিয়ে তাঁদের এবং তাঁদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলবেন সুকান্ত।

শনিবার নিশীথের কনভয়ে হামলার পর থেকে বঙ্গ রাজনীতিতে উত্তেজনার পারদ চড়েছে। গেরুয়া শিবির রাজ্যে ৩৫৫ ধারা জারির দাবি তুলেছে। শুভেন্দু অধিকারী, সুকান্ত মজুমদারদের মতো রাজ্য বিজেপির নেতারা শাসকদলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। কিন্তু রাজ্য নেতৃত্বের তরফে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কোনও সক্রিয় কর্মসূচি এর আগে দেখা যায়নি। রবিবার রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস একটি বিবৃতি দিয়ে নিশীথের কনভয়ে হামলার ঘটনার নিন্দা করেছেন। সেই সঙ্গে, নবান্নের কাছ থেকে দিনহাটা নিয়ে রিপোর্টও তলব করেছেন তিনি। রাজভবনের এই বিবৃতির পরেই দিনহাটায় সক্রিয় কর্মসূচি ঘোষণা করল রাজ্য বিজেপি।

রবিবার সন্ধ্যার বিবৃতিতে রাজ্যপাল দিনহাটার ঘটনাকে ‘শোচনীয়’ আখ্যা দিয়ে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। পুলিশ ও প্রশাসনকে যে আরও সতর্ক থাকতে হবে, সে বিষয়েও বার্তা দিয়েছেন রাজ্যপাল। আনন্দ লিখেছেন, ‘‘যাঁদের হাতে দায়িত্ব রয়েছে, তাঁদের সংবিধানের গুরুত্ব তুলে ধরতে হবে। বাংলা চায়, প্রত্যেক পুলিশ বা প্রশাসনিক কর্তা, তাঁরা যে দায়িত্বেই থাকুন, ভয় না পেয়ে এবং কোনও রকম পক্ষপাতিত্ব না করে তাঁরা তাঁদের দায়িত্ব পালন করুন।’’ একই সঙ্গে বিবৃতিতে রাজভবনের বার্তা, ‘‘রাজ্যের কোথাও কোনও রকম আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হলে রাজ্যপাল নির্বাক দর্শক হয়ে থাকবেন না।’’

দিনহাটার ঘটনা নিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এখনও পর্যন্ত কোনও বিবৃতি দেয়নি। বিজেপি সূত্রে মনে করা হচ্ছে, কেন্দ্রের নির্দেশ পেয়েই মূল ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পর কড়া বিবৃতি দিয়েছেন রাজ্যপাল।

রাজভবনের বিবৃতিতে সাহস পেয়েই কি এই কর্মসূচির সিদ্ধান্ত? সুকান্তকে এই প্রশ্ন করা হলে তিনি অবশ্য বলেন, ‘‘দিনহাটায় যাওয়ার কথা আগেই ঠিক হয়েছিল। অন্য কর্মসূচি থাকার জন্য একটু দেরি হয়েছে। তবে রাজ্যপালের বিবৃতি শুধু আমাদের নয়, রাজ্যবাসীর মনেও সাহস জুগিয়েছে। রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান কিছু বললে তা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ।’’ দিনহাটার ঘটনায় রবিবার রাজ্য জুড়ে থানা ঘেরাওয়ের কর্মসূচি নিয়েছিল বিজেপি। কিন্তু তাতে তেমন সাড়া মেলেনি।

শনিবার পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী দিনহাটার বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত’ বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং জনসংযোগ করতে এলাকায় যান নিশীথ। কিন্তু দিনহাটার বুড়িরহাট এলাকায় তাঁর কনভয়ের সামনে তৃণমূল কর্মীরা কালো পতাকা দেখান। যার জেরে উপস্থিত বিজেপি কর্মী-সমর্থক এবং তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে বচসা এবং হাতাহাতি শুরু হয়। এর পরই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কনভয়ের উপর ঢিল ছোড়া হয় বলে অভিযোগ। তাঁর গাড়ির কাচ ভেঙে যায়। নিরাপত্তারক্ষীরা নিশীথকে সেখান থেকে বার করে নিয়ে যান। অভিযোগ, নিশীথের গাড়ি লক্ষ্য গুলি এবং বোমা ছোড়া হয়েছে। তার পর থেকে দিনহাটায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত। তার মাঝে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করল রাজ্য বিজেপি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE