Advertisement
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Suvendu Adhikari

‘গুন্ডি’দের এগিয়ে দিয়েছেন পুলিশ অফিসাররা! আটক হয়ে লালবাজারে ঢুকেও ‘লেডি পুলিশ’ নিয়ে ক্ষোভ শুভেন্দুর

মঙ্গলবার তাঁকে আটকানোর সময় কলকাতা পুলিশের শীর্ষ আধিকারিকরা যে ভাবে ‘লেডি পুলিশ’ ব্যবহার করেছেন, তাতে ক্ষুব্ধ শুভেন্দু। লালবাজারে পুলিশি হেফাজত থেকেই ফেসবুক লাইভ করেন তিনি।

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী নবান্ন অভিযানে যোগ দিতে গিয়ে বাধা পান পুলিশের মহিলার দ্বারা।

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী নবান্ন অভিযানে যোগ দিতে গিয়ে বাধা পান পুলিশের মহিলার দ্বারা। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৬:০২
Share: Save:

বিজেপির নবান্ন অভিযানের শুরুতেই গ্রেফতার করা হয় বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। মঙ্গলবার তাঁকে আটকানোর সময় কলকাতা পুলিশের শীর্ষ আধিকারিকরা যেভাবে ‘লেডি পুলিশ’ ব্যবহার করেছেন, তাতে ক্ষুব্ধ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু। লালবাজারে পুলিশি হেফাজত থেকেই হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে লাইভ করেন তিনি। সেখানে শুভেন্দু কলকাতা পুলিশের মহিলা বাহিনীকে ‘গুন্ডি’ বলে আখ্যা দেন। তিনি বলেন, ‘‘আমার দায়িত্ব ছিল সাঁতরাগাছি থেকে মিছিলকে নেতৃত্ব দেওয়া। আমার সঙ্গে থাকার কথা ছিল লকেট চট্টোপাধ্যায় ও রাহুল সিংহের। আমরা যখন মুভ করছিলাম, তখন দ্বিতীয় হুগলি সেতুর কাছে আমাদের আটক করে। শুধু আটকানো নয়, বলা হেস্টিংসে চলে যান। আমরা বলি নদী পেরোব কী করে? আমরা বলি হয় আপনাদের বাইকে করে পৌঁছে দিন, নতুবা রেলস্টেশনে পৌঁছে দিন সেখান থেকে লোকাল ট্রেনে করে যাব।’’ এর পর ক্ষোভের সুরে শুভেন্দু বলেন, ‘‘এর পর আইপিএসরা সরে গিয়ে মহিলা এসআই ও কনস্টেবলদের এগিয়ে দেয়। তাদের মধ্যে এক জন বাংলা বলতে পারছিলেন না। হিন্দিতে কথা বলছিলেন, বাংলা জানেন না বোধহয়। সকালবেলায় যে পোশাক পরে লোকে জগিং করে, সেই পোশাক পরেছিলেন। আমি পোশাক নিয়ে কিছু বলছি না। ওদের জ্ঞানবন্ত সিংহ ইশারা করেন, জ্ঞানবন্তের অনেক রাগ আছে আমার ওপর। গরু স্মাগলিংয়ের টাকা নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে। ইডি অনেক বার ডেকেছেন যাননি। তাই আমি বা আমাদের ওপর অনেক রাগ রয়েছে।’’ বিরোধী দলনেতার অভিযোগ ‘‘সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়কে একেবারে ক্রিমিনালের মতো নিয়ে যাওয়া হল। রাহুল সিংহকে তো আচঁড়ে দেওয়া হয়েছে। শেষে আমাকে ধাক্কা দিয়ে নিয়ে যাওয়া হল। চেয়েছিল আমি কাউন্টার করি। আমি অত বোকা লোক নই।’’ ফেসবুক লাইভে শুভেন্দু কর্মীদের উদ্দেশে বার্তা দিয়ে বলেন, ‘‘আমাদের নবান্ন অভিযানে অনেক অত্যাচার করেছে। এই ফাউল ওয়েদার। ট্রেনে উঠতে দেয়নি। দেড় লক্ষ কর্মীকে আটকে দিয়েছে। জলকামান মারা হচ্ছে, টিয়ার গ্যাস ছোঁড়া হচ্ছে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি কর্মীদের বলব কোনও প্ররোচনার ফাঁদে পা দেবেন না। ২৪ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উৎখাত করব। ডিসেম্বর মাস থেকে মুখ্যমন্ত্রী সরকার চালাতে পারবেন না। কোনও প্ররোচনায় পা দেবেন না। আমাদের কোনও কর্মী যাতে লস না হয়। গ্রেফতার হলে আমরা আইনি লড়াই করে আপনাদের বের করে আনব।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.