Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Hoarding

শহর ও শহরতলি এলাকায় বেআইনি হোর্ডিং রুখতে নতুন নিয়ম আনছে পুর দফতর

পুর দফতরের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, যত্রতত্র বেআইনি হোর্ডিং দেওয়া চলবে না। এই বিষয়ে একটি সুস্পষ্ট নীতি তৈরি করছে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর।

image of a Hoarding.

কলকাতা শহর তো বটেই, সম্প্রতি বিধাননগর পুর এলাকাতেও বেআইনি হোর্ডিং সংক্রান্ত অভিযোগ জমা পড়েছিল পুর দফতরে। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৯:৩৫
Share: Save:

দূষণ নিয়ন্ত্রণে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার কথা আগেই ঘোষণা করেছিল রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর। এ বার সেই পর্যায়ে শহর ও শহরতলির দৃশ্যদূষণ কমাতে বেআইনি হোর্ডিংয়ের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে চলেছে তারা। পুর দফতরের অধীনে থাকা পুরনিগম এবং পুরসভা এলাকাগুলিতে বেআইনি হোর্ডিংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে দফতর। তাই নতুন হোর্ডিং নিয়ম তৈরি করছে রাজ্য। বাইপাসের বিশ্ববাংলা সরণি-সহ শহরের বিভিন্ন প্রান্তে অনুমোদনহীন বহু হোর্ডিং লাগানো রয়েছে। রাস্তা লাগোয়া বহু বাড়িতেও হোর্ডিং লাগানো রয়েছে। সেই সব হোর্ডিং লাগিয়ে কোনও রকম কর দেওয়া হয় না রাজ্য সরকারকে। তাই এ বার বেআইনি হোর্ডিং দেওয়ার উপর রাশ টানতে চাইছে পুর দফতর। কলকাতা শহর তো বটেই, সম্প্রতি বিধাননগর পুর এলাকাতেও বেআইনি হোর্ডিং সংক্রান্ত অভিযোগ জমা পড়েছিল পুর দফতরে। তার পরেই এই সংক্রান্ত বিষয়ে অন্য পুরসভাগুলি থেকেও রিপোর্ট তলব করা হয়। সেখানেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখে কড়া পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত নেয় পুর দফতর।

পুর দফতরের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, যত্রতত্র বেআইনি হোর্ডিং দেওয়া চলবে না। এই বিষয়ে একটি সুস্পষ্ট নীতি তৈরি করছে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর। এই সংক্রান্ত বিষয়ে গত মঙ্গলবার পুরমন্ত্রী ফিরহাদের নেতৃত্বে পুরসচিব খলিল আহমেদ, অতিরিক্ত সচিব জলি চৌধুরী-সহ দফতরের উচ্চপদস্থ কর্তাব্যক্তিদের একটি বৈঠক হয়। পুর দফতর সূত্রে খবর, সেই বৈঠকেই বেআইনি হোডিং সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন যে, কোনও রাস্তা, পুরসভা বা পুর কর্তৃপক্ষের আওতায় থাকা এলাকায় হোর্ডিং লাগানো হলে, সেই হোর্ডিং বাবদ রাজস্ব আদায় করা হবে। আর আগের মতো যেখানে সেখানে ইচ্ছে মতো হোর্ডিং দেওয়া যাবে না। কোনও জায়গায় বেআইনি হোর্ডিং লাগানো হলে, তা প্রশাসন খুলে নিতে বাধ্য থাকবে। প্রত্যেকটি পুর নিগম ও পুরসভা কর্তৃপক্ষ সেই নীতি মেনে চলবে। ওই বৈঠকেই হোর্ডিং থেকে ৫০০ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে। একই সঙ্গে সিদ্ধান্ত হয়েছে, বিজ্ঞাপনী হোর্ডিংয়ের জন্য যে নতুন নীতি তৈরি করা হবে, সেটা মানতে হবে বিজ্ঞাপন সংস্থাগুলিকেও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

hoarding Municipal Department
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE