Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Sisir Adhikari: নেটমাধ্যমে তৃণমূলের ‘বাবাকে বলো’ প্রচার নিয়ে কাঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের সাংসদ দিব্যেন্দুর

নেটমাধ্যমে তৃণমূলের ‘বাবাকে বলো’প্রচারের বিরুদ্ধে কাঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১০ জুলাই ২০২১ ১৫:১৪
নেটমাধ্য়মে বাবাকে বলো প্রচারে বেজায় ক্ষুব্ধ অধিকারী পরিবার।

নেটমাধ্য়মে বাবাকে বলো প্রচারে বেজায় ক্ষুব্ধ অধিকারী পরিবার।
নিজস্ব চিত্র।

নেটমাধ্যমে তৃণমূলের‘বাবাকে বলো’ প্রচারের বিরুদ্ধে কাঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। শুক্রবার রাতে কাঁথি থানায় তিনি এই অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মঙ্গলবার বিধানসভায় বাজেট নিয়ে আলোচনার সময় বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর উদ্দেশে তির্যক মন্তব্য করেন নৈহাটির তৃণমূল বিধায়ক পার্থ ভৌমিক। তিনি বলেন, ‘‘আমরা (তৃণমূল) লোকসভা ভোটে ১৮টি আসন হারিয়ে একটি কর্মসূচি নিয়েছিলাম। যেখানে বলা হয়েছিল কন্যাশ্রী না পেলে দিদিকে বলো। রূপশ্রী না পেলে দিদিকে বলো। তাই বলছি, দলত্যাগবিরোধী আইন নিয়ে বিরোধী দলনেতাকে বলব, আপনি বাবাকে বলো কর্মসূচি নিন।’’

তারপরেই শাসকদলের নিচুতলার কর্মীরা ‘বাবাকে বলো’ লোগো তৈরি করে নেটমাধ্যমে প্রচার শুরু করেন। যেখানে পদ্ম প্রতীকের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয় শুভেন্দুর বাবাশিশির অধিকারীর ছবি ওমোবাইল নম্বর। সেই প্রচারে লেখা হয়, শুভেন্দু অধিকারী যখনই দলত্যাগ বিরোধী আইনের কথা বলবেন তখনই তাঁকে বলবেন ‘বাবাকে বলো’। এমন প্রচার শুরু হলে একের পর এক ফোন আসা শুরু হয় প্রবীণ সাংসদ শিশিরবাবুর মোবাইলে। অশীতিপর রাজনীতিক এই ঘটনায় বেজায় বিরক্ত হন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে। গত কয়েক দিন ধরে নিজের মোবাইল ফোনটি বন্ধ রেখেছেন তিনি। এর পরে শুক্রবার রাতে কাঁথি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁর সেজো ছেলে দিব্যেন্দু। পরে তমলুকের সাংসদ বলেন, ‘‘অবিলম্বে নেটমাধ্যমে থেকে ওই লোগো সরিয়ে নেওয়াএবং যারা এই লোগো নেটমাধ্যম মারফৎ ছড়িয়ে দিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলেছি। অহেতুক বাবাকে বিরক্ত করা হচ্ছে।’’

Advertisement

শিশির ও দিব্যেন্দু— দু’জনেই এখনও তৃণমূল সাংসদ। কিন্তু, শুভেন্দু বিজেপি-তে যোগ দেওয়ায় অধিকারী পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে গিয়েছে তৃণমূলের। বিজেপি-তে যোগ না দিলেও, তৃণমূলের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই দিব্যেন্দুর। শিশির গত ২১ মার্চ এগরায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের প্রচার সভায় ভাষণদিয়েছিলেন। সেই সূত্র ধরেই তার সাংসদ পদ খারিজের দাবি জানিয়েছেন তৃণমূলের লোকসভার দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

সম্প্রতি কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায় ১১ জুন তৃণমূলে যোগ দিলে, তাঁর বিধায়কপদ খারিজের দাবিতে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন করেছেন শুভেন্দু। তারপরেই বিধানসভায় নৈহাটির তৃণমূল বিধায়ক ‘বাবাকে বলো’স্লোগানে কটাক্ষ করেন বিরোধী দলনেতাকে। এ বার সেই স্লোগান নিয়েই পুলিশের দ্বারস্থ অধিকার পরিবার।

আরও পড়ুন

Advertisement