Advertisement
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Bratya Basu

১৪ জন ‘অবৈধ’ উপাচার্যের বেতন এবং ভাতা বন্ধ, শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে

শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু আগেই জানিয়েছিলেন, উচ্চশিক্ষা দফতরের সঙ্গে আলোচনা ছাড়াই রাজ্যপাল যাঁদের অস্থায়ী উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ করেছেন, রাজ্য সরকার তাঁদের স্বীকৃতি দিচ্ছে না।

Bratya Basu.

শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৩ জুন ২০২৩ ০৭:১৩
Share: Save:

যুদ্ধ বলা হোক বা দ্বৈরথ, এ ক্ষেত্রে সেটা রাজায়-রাজায় নয়, রাজ্য সরকার ও রাজভবনের মধ্যে। মাঝখান থেকে সেই সব অস্থায়ী উপাচার্য বেতন ও ভাতা বন্ধের মুখে পড়লেন, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা না-করে রাজ্যপাল যাঁদের নিয়োগ করেছেন সরাসরি। রাজ্যের উচ্চশিক্ষা দফতর থেকে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারদের কাছে নির্দেশ পৌঁছেছে, ওই সব অস্থায়ী উপাচার্যের নিয়োগ বেআইনি। তাই তাঁরা বেতন ও ভাতা পাবেন না। দু’দফায় এ ভাবে ১৪ জন অস্থায়ী উপাচার্য নিয়োগ করেছেন রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস।

শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু আগেই জানিয়েছিলেন, উচ্চশিক্ষা দফতরের সঙ্গে আলোচনা ছাড়াই রাজ্যপাল যাঁদের অস্থায়ী উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ করেছেন, রাজ্য সরকার তাঁদের স্বীকৃতি দিচ্ছে না। ‘বেআইনি ভাবে’ নিযুক্ত সেই উপাচার্যদের পদ প্রত্যাখ্যান করার অনুরোধও জানান তিনি। তবে এক জন ছাড়া সকলেই অস্থায়ী উপাচার্যের পদে যোগ দিয়েছেন। তার পরে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, এই বিষয়ে আইনি পরামর্শ নেওয়া হবে। তার পরেই এ দিন উচ্চশিক্ষা দফতরের নির্দেশ পৌঁছয় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে।

শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা না-করে রাজ্যপাল প্রথমে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থায়ী উপাচার্য নিয়োগ করেন। পরে একই ভাবে নিয়োগ করেন ১১ জনকে। উচ্চশিক্ষা দফতর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির কাছে পাঠানো চিঠিতে জানানো হয়েছে, রাজ্যপালের এ ভাবে সরাসরি উপাচার্য নিয়োগের কোনও এক্তিয়ার নেই। সেটা করতে হয় উচ্চশিক্ষা দফতরের মাধ্যমে। তাই উচ্চশিক্ষা দফতর ওই উপাচার্যদের বৈধ উপাচার্য হিসেবে গণ্য করছে না। তাঁদের জন্য বরাদ্দ বেতন এবং ভাতাও মঞ্জুর করছে না রাজ্য সরকার। রাজ্যপালের এই পদ্ধতিতে অস্থায়ী উপাচার্য নিয়োগ নিয়ে মামলাও হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE