Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Kolkata weather: ঢুকছে উত্তুরে হাওয়া, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বাঘা শীতের পূর্বাভাস দিচ্ছে হাওয়া অফিস

বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ১৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৭ জানুয়ারি ২০২২ ০৭:৩৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
কুয়াশা ঢাকা: গলসি-গোহগ্রাম রাস্তায় সকালে আলো জ্বালিয়ে যাচ্ছে ট্রাক্টর।

কুয়াশা ঢাকা: গলসি-গোহগ্রাম রাস্তায় সকালে আলো জ্বালিয়ে যাচ্ছে ট্রাক্টর।
ছবি: কাজল মির্জা

Popup Close

শীতের আরও একটা ইনিংস পেতে চলেছে বাঙালি। অন্তত তেমনই বার্তা দিল আলিপুরের আবহাওয়া দফতর। এমনকি সেই ইনিংস ‘মাঘের শীত বাঘ’ প্রবাদটিকেও সত্যি করে তুলতে পারে বলে ইঙ্গিত। আলিপুর আবহাওয়া দফতর আশ্বাস দিয়েছে, আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যে বড় মাপের পারদ পতনের সম্ভাবনা আছে। তিন দিনে উত্তর এবং দক্ষিণ— রাজ্যের দুই অর্ধের বিভিন্ন জেলায় রাতের তাপমাত্রা ৩-৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নামতে পারে বলে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। এরই সঙ্গে জানানো হয়েছে, সকালে কুয়াশারও সম্ভাবনা আছে কোনও কোনও জেলায়।

বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে যা ২ ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ১৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে যা ৩ ডিগ্রি বেশি। বুধবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে দু’ডিগ্রি বেশি। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল আরও বেশি, ১৭.২ ডিগ্রি।

Advertisement

এই দফাতেই এ বছরের মতো শীত শেষ হবে কি না, সেই বিষয়েও বিস্তর জল্পনা চলছে নানা মহলে। তাই শেষ কামড়ে শীত কী খেল্ দেখাবে, তা নিয়ে কৌতূহলের অন্ত নেই। হাওয়া অফিস পারদ পতনের যে-হার আঁচ করছে বা আভাস দিচ্ছে, তাতে জানুয়ারির শেষে রাজ্যের নানা প্রান্তে হাড়কাঁপানো শীত মালুম হতে পারে। ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেও থাকতে পারে শীত। তার পর কিন্তু ধীরে ধীরে তাপমাত্রা বাড়বে। আসবে বসন্ত।

সপ্তাহান্তে রাজ্যে পারদ পতন হলেও, আবহবিদদের অনেকের বক্তব্য, খাস কলকাতায় হয়তো শীত ততটা জোরালো না-ও হতে পারে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে সম্প্রতি বঙ্গের আকাশে শ্রাবণ-ভাদ্রের মতো মেঘ জমেছিল। হালকা বৃষ্টিও হয়েছে অনেক এলাকায়। আকাশ মেঘলা থাকায় রাতের তাপমাত্রা নামতে পারছিল না। সেই ঝঞ্ঝার প্রভাব কেটে যাচ্ছে। এ বার উত্তর-পশ্চিম ভারত থেকে কনকনে ঠান্ডা উত্তুরে বাতাস ঢুকলেই পারদও নামতে শুরু করবে বলে জানাচ্ছেন আবহবিদেরা। আলিপুর হাওয়া অফিস সূত্রের খবর, ঝঞ্ঝার প্রভাবে রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও রাতের তাপমাত্রা অনেক বেড়েছে। বীরভূমের শ্রীনিকেতনে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.৭ ডিগ্রি। কয়েক দিন আগেও হাড়কাঁপানো শীতের দাপট চলছিল পুরুলিয়ায়। এখন সেখানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪ ডিগ্রি ছাড়িয়ে গিয়েছে। পানাগড় জোরদার শীতের জন্য বিখ্যাত। সেখানেও রাতের তাপমাত্রা ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে। তুলনামূলক ভাবে উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি, শিলিগুড়ি, কোচবিহারে শীতের দাপট বেশি। কোচবিহার, শিলিগুড়ি এবং জলপাইগুড়িতে এ দিন রাতের তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ৮.৬, ১০.৬ এবং ১১.১ ডিগ্রি। বালুরঘাটেও শীতের দাপট মালুম হয়েছে।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement