Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

অ্যালিগেটর টেনে নিয়ে গেল শিশুকে

বাবা-মায়ের সঙ্গে ছুটি কাটাতে অরল্যান্ডোর ডিজনিল্যান্ডে এসেছিল বছর দুয়েকের শিশুটি। হ্রদের ধারে খেলছিল শিশুটি। খেলতে খেলতে কখন যে সে হ্রদের এক

সংবাদ সংস্থা
অরল্যান্ডো ১৬ জুন ২০১৬ ০৮:২৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

বাবা-মায়ের সঙ্গে ছুটি কাটাতে অরল্যান্ডোর ডিজনিল্যান্ডে এসেছিল বছর দুয়েকের শিশুটি। হ্রদের ধারে খেলছিল শিশুটি। খেলতে খেলতে কখন যে সে হ্রদের একেবারে ধারে চলে গিয়েছিল, খেয়াল করেনি কেউ।

আর তখনই এক অ্যালিগেটরের হানা! চোখের নিমেষে শিশুটিকে টেনে নিয়ে যায় হ্রদে। ছেলেকে বাঁচাতে অবশ্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন বাবা। কিন্তু ওই অ্যালিগেটরের সঙ্গে এঁটে উঠতে পারেননি।

মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে অরল্যান্ডোর ডিজনি গ্র্যান্ড ফ্লোরিডিয়ান রিসর্ট ও স্পায়ের সেভেন সিস লেগুন উপকূলে। এই ঘটনায় ছড়িয়েছে আতঙ্ক। শিশুটির খোঁজে তল্লাশি চালাতে ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী এবং বন্যপ্রাণি বিশারদেরা। কিন্তু এখনও পর্যন্ত শিশুটির কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

Advertisement

বন দফতরের কর্তারা জানাচ্ছেন, ফ্লোরিডায় হামেশাই অ্যালিগেটরের দেখা মেলে। তবে ওই এলাকায় এ ধরনের ঘটনা বিরল। আর ঠিক কত বড় অ্যালিগেটর শিশুটিকে আক্রমণ করেছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, অ্যালিগেটরটি চার থেকে সাত ফুট লম্বা হতে পারে।

পুলিশের বক্তব্য, ওই হ্রদের ধারে সাঁতার কাটা যাবে না বলে একটি বোর্ড লাগানো রয়েছে। কী ভাবে শিশুটি সেখানে পৌঁছল, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। ফ্লোরিডার শেরিফ জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত শিশুটির কোনও হদিস পাওয়া যায়নি। ফলে তাঁর আশঙ্কা, শিশুটি হয়তো আর বেঁচে নেই।

ঘটনার কথা ভেবে এখনও শিউরে উঠছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। ওই রিসর্টেই ছিলেন জাস্টিন নামে এক ব্যক্তি। বছর চল্লিশের জাস্টিন চার সন্তানের বাবা। তাঁর কথায়, ‘‘এটা বিশ্বের সবচেয়ে আনন্দের জায়গা। আমি এখানে কাজের জন্যই এসেছি। আমার পরিবারেরও আসার কথা ছিল। কিন্তু কোনও কারণে আমার স্ত্রী-ছেলেমেয়ে আসতে পারেনি।’’ এখন তাই জাস্টিন বলছেন, ‘‘ভাগ্যিস! ওরা আসেনি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement