Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪
China-Belarus Military Exercise

ইউক্রেনের পড়শি দেশে চিনা সেনা! আশঙ্কা উস্কে সীমান্তে শুরু করে দিল যুদ্ধের যৌথমহড়া

রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের আবহে গোড়া থেকেই দৃঢ় ভাবে ভ্লাদিমির পুতিনের পাশে দাঁড়িয়েছেন বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেকজ়ান্ডার লুকাশেঙ্কো।

এ বার বেলারুশে পৌঁছল চিনা ফৌজ।

এ বার বেলারুশে পৌঁছল চিনা ফৌজ। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ জুলাই ২০২৪ ২৩:২০
Share: Save:

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের আবহে এ বার বেলারুশে পৌঁছল চিনা ফৌজ। পোল্যান্ড সীমান্তে বেলারুশ সেনার সঙ্গে যৌথ যুদ্ধ মহড়া শুরু করেছে চিনা পিপল্‌স লিবারেশন আর্মি (পিএলএ)। আগামী ১১ দিন ধরে ওই মহড়া চলবে বলে জানিয়েছে বেলারুশ।

রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের আবহে গোড়া থেকেই দৃঢ় ভাবে ভ্লাদিমির পুতিনের পাশে দাঁড়িয়েছেন বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেকজ়ান্ডার লুকাশেঙ্কো। আর সেই সমর্থনের ‘মূল্য’ হিসাবে বেলারুশের হাতে মস্কো তাদের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারের একাশ তুলে দিয়েছে বলেও জল্পনা। অন্য দিকে, পোল্যান্ড আমেরিকার নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট নেটোর সদস্য। এই আবহে সীমান্তে যুদ্ধ মহড়া নতুন করে অশান্তি তৈরি করতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ঘটনাচক্রে, গত মাসেই পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রজ়েজ দুদা চিন সফরে গিয়ে সে দেশের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা সংক্রান্ত নানা বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন। তার এক মাসের মধ্যেই ওয়ারশকে চাপে ফেলল বেজিং। অবশ্য, চিনের তরফে সাফাই দেওয়া হয়েছে, সন্ত্রাস দমন, পণবন্দি মুক্তির মতো বিশেষ অভিযানের প্রশিক্ষণের অংশ হিসাবেই বেলারুশের ব্রেস্ট এলাকায় এই যৌথ মহড়ার আয়োজন। যদিও বেলারুশের সশস্ত্র বাহিনীর ডেপুটি চিফ অফ জেনারেল স্টাফ ভ্লাদিমির কুপ্রিয়নিউক মঙ্গলবার বলেন, ‘‘এই অঞ্চলে নেটোর তৎপরতার জবাব হিসেবেই মহড়ার আয়োজন করা হয়েছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

China Belarus Russia-Ukraine War
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE