×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

‘কেন শিশুদের বোমা মারছে ওরা’, ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে অসহায় কান্না গাজার ছোট্ট নাদিনের

সংবাদ সংস্থা
গাজা সিটি ১৬ মে ২০২১ ২১:৫৭
অসহায় কান্নায় ভেঙে পড়েছে গাজার নাদিন-আবদেল-তইফ।

অসহায় কান্নায় ভেঙে পড়েছে গাজার নাদিন-আবদেল-তইফ।

ইজরায়েলি বিমান হানায় তার বাড়ি এখন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। চোখের সামনে বোমাবর্ষণে পরিজন-প্রতিবেশীর মৃত্যু দেখছে বছর দশেকের মেয়েটি। এই ‘যুদ্ধ’ থামানোর ক্ষমতা তার নেই। ধ্বংসস্তূপের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করিয়ে অসহায় কান্নায় ভেঙে পড়ে গাজার নাদিন-আবদেল-তইফ বলছে, ‘‘কী করব আমি? আমার কী ক্ষমতা আছে? আমার বয়স মাত্র ১০ বছর…।’’ নাদিনের ওই কান্নার ভিডিয়ো নেট মাধ্যমে এখন ভাইরাল।

শনিবার পর্যন্ত গাজায় ইজরায়েলি বিমান হানায় প্রায় ১৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। তার মধ্যে ৪১ জনই শিশু। ইউনিসেফের রিপোর্ট বলছে, গাজায় সর্বনিম্ন ৬ বছর বয়সের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। যদিও সাধারণ নাগরিকদের উপর হামলা চালানোর কথা অস্বীকার করেই চলেছে ইজরায়েল। ইজরায়েলেও দুই শিশুর মৃত্যুর খবর মিলেছে। তার মধ্যে একজনের বয়স ৬ বছর।

Advertisement

ভিডিয়ো-তে সংবাদমাধ্যম ‘মিডিল ইস্ট আই’-কে ছোট্ট নাদিন কাঁদতে কাঁদতে বলছে, ‘‘কী করব আমি, বলুন? ওই ধ্বংসস্তূপ সরাবো? আমার সত্যিই ভয় করছে। আমার লোকেদের জন্য আমি সব কিছু করতে পারি। কিন্তু কী করা উচিত এখন, সেটাই তো বুঝতে পারছি না। আমি বড় হয়ে ডাক্তার হতে চাই যাতে লোককে সাহায্য করতে পারি। কিন্তু কিছুই করে উঠতে পারছি না।’’ তাকে আরও বলতে শোনা যায়, ‘‘আমি যখনই এসব দেখি, আমার কান্না পায়। শুধু ভাবি, কেন আমাদের উপরই হামলা হচ্ছে? বাড়ির লোকেরা বলে, আমরা মুসলিম বলে ওরা আমাদের ঘৃণা করে। এখানে এত শিশু থাকে। কেন শিশুদের উপর বোমাবর্ষণ করছে ওরা?’’

Advertisement