Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আরবে ভারতীয়দের সুরক্ষায় সক্রিয় দিল্লি

ভারতের চিন্তা বাড়িয়ে সম্প্রতি বৈদেশিক মুদ্রার আমদানি কমেছে। ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন ওই সব দেশে রুজির সন্ধানে যাওয়া বিভিন্ন প্রদেশের মানুষ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ১৬ এপ্রিল ২০১৮ ০২:৪২

ইরাকে আইএস জঙ্গিদের হাতে অপহৃত ভারতীয় শ্রমিকদের হত্যাকাণ্ডের পরে বিতর্ক শুরু হয়েছে ঠিকই। কিন্তু ঘটনা এটাই যে, গত ক’বছর ধরে পশ্চিম এশিয়া তথা উপসাগরীয় রাষ্ট্রগুলিতে কাজ করতে যাওয়া ভারতীয়দের সঙ্কট নানা কারণে বাড়ছে। তাতে টনক নড়েছে সাউথ ব্লকের। সঙ্কট মোকাবিলায় বেশ কিছু পদক্ষেপ করেছে দিল্লি। যার মধ্যে সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রগুলিতে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসের পরিষেবা বাড়ানো, বিপদে পড়া শ্রমিকদের নিরাপত্তা দেওয়া থেকে আর্থিক সহায়তার মতো নানা বিষয় রয়েছে।

ভারতের চিন্তা বাড়িয়ে সম্প্রতি বৈদেশিক মুদ্রার আমদানি কমেছে। ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন ওই সব দেশে রুজির সন্ধানে যাওয়া বিভিন্ন প্রদেশের মানুষ। সরকার খতিয়ে দেখেছে, একে তো পেট্রোপণ্যের মূল্যহ্রাসের কারণে অর্থনীতি ধাক্কা খেয়েছে বাহরাইন, কুয়েত, ইরাক, ওমানের মতো দেশগুলিতে। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে একাধিক রাষ্ট্রে রাজনৈতিক সঙ্কট। সৌদি আরব সে দেশে বসবাসকারী বিদেশিদের জন্য একটি বিশেষ কর চাপিয়ে পরিস্থিতি ঘোরালো করেছে। নকল নিয়োগকারীদের দ্বারা ভারতীয় শ্রমিকরা প্রতারিত হচ্ছেন। এর সঙ্গে রয়েছে সন্ত্রাসকবলিত এলাকায় প্রাণ হাতে কাজের ঝুঁকি। সম্প্রতি লোকসভায় এক প্রশ্নের লিখিত জবাবে বিদেশ প্রতিমন্ত্রী ভি কে সিংহ বলেন, ‘‘আরব দেশগুলিতে কর্মরত ভারতীয়দের অভিযোগ জমছে ওই সব দেশে আমাদের দূতাবাসগুলিতে। কাজ, বসবাসের পরিবেশ, বেতন-সমস্যা, ছুটি না দেওয়া, পাসপোর্ট কেড়ে নেওয়ার মতো সমস্যা রয়েছে।’’

এ সব দিকে লক্ষ্য রেখে যে সব পদক্ষেপ ইতিমধ্যেই করা হয়েছে, তার তালিকা প্রকাশ করেছে বিদেশ মন্ত্রক। খোলা হয়েছে একাধিক সরকারি পোর্টাল। যেখানে ভিনদেশে পাড়ি দেওয়া শ্রমিক ও তাঁর পরিবার নিজেদের নাম নথিভুক্ত করে সরাসরি সংশ্লিষ্ট দূতাবাসে বা মন্ত্রকের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন। বিদেশ নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসগুলিতে শুরু হয়েছে ‘ওপেন হাউস’ নামে এক কর্মসূচি, যেখানে শ্রমিকরা অভিযোগ জানাতে পারবেন। আরব দেশগুলির ভারতীয় মিশনে ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখা হয়েছে টোল-ফ্রি হেল্পলাইন। দুবাই, শারজা, রিয়াধ ও জেড্ডায় খোলা হয়েছে ‘ইন্ডিয়ান ওয়ার্কার্স রিসোর্স সেন্টার’ (আইডবলিউ আরসি)। দূতাবাসগুলিতে যে ‘ইন্ডিয়ান কমিউনিটি ওয়েলফেয়ার ফান্ড’ রয়েছে, তা সংশ্লিষ্ট দেশে কর্মরত শ্রমিকদের সাহায্যে ব্যবহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাহরাইন, কাতার, কুয়েতের মতো দেশগুলিতে তৈরি করা হয়েছে বিপদগ্রস্ত শ্রমিকদের জন্য আবাসন ব্যবস্থা।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement