Advertisement
২৫ মে ২০২৪
Volcanic Eruption in Indonesia

ইন্দোনেশিয়ায় জেগে উঠল আগ্নেয়গিরি, ঘরছাড়া ১১ হাজার মানুষ! জারি সুনামি সতর্কতাও

মঙ্গলবার থেকে ইন্দোনেশিয়ার উত্তর সুলাওয়েসি প্রদেশের মাউন্ট রুয়াং-এ পর পর চার বার বিস্ফোরণ ঘটেছে। আগ্নেয়গিরিটির জ্বালামুখ খুলে গিয়ে লাভাস্রোত ছড়িয়ে পড়েছে সংলগ্ন এলাকায়।

ছড়িয়ে পড়েছে লাভাস্রোত।

ছড়িয়ে পড়েছে লাভাস্রোত। ছবি: রয়টার্স।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ১১:৫২
Share: Save:

ইন্দোনেশিয়ায় জেগে উঠল আগ্নেয়গিরি। মঙ্গলবার থেকে সে দেশের উত্তর সুলাওয়েসি প্রদেশের মাউন্ট রুয়াং-এ পর পর চার বার বিস্ফোরণ ঘটেছে। আগ্নেয়গিরিটির জ্বালামুখ খুলে গিয়ে লাভাস্রোত ছড়িয়ে পড়েছে সংলগ্ন এলাকায়। দূর থেকে লক্ষ করা যাচ্ছে, আগ্নেয়গিরিটির কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে আকাশ।

স্থানীয় প্রশাসনের তরফে জানা গিয়েছে, প্রায় ১১ হাজার মানুষকে সংলগ্ন এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পর্যটকদের বলা হয়েছে, তারা যেন মাউন্ট রুয়াং থেকে অন্তত ৬ কিলোমিটার দূরত্ব বজায় রাখেন। ইতিমধ্যেই ইন্দোনেশিয়ার ‘সেন্টার ফর ভলক্যানোলজি’ এবং ‘জিয়োলজিক্যাল ডিজ়াস্টার ম্যানেজমেন্ট’ অগ্ন্যুৎপাত নিয়ে গোটা দেশে সতর্কতা জারি করেছে। বুধবার সুনামির সতর্কতাও জারি করা হয়েছে সে দেশে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে প্রথম বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায় মাউন্ট রুয়াং-এ। তার পর বুধবার পর্যন্ত মোট চার বার বিস্ফোরণ হয় সেখানে। প্রায় ১০০০ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত লাভাস্রোত দেখা যায়। সঙ্গে সঙ্গে ইন্দোনেশিয়ার বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর প্রায় ১১ হাজার বাসিন্দাকে নিকটবর্তী শহর মানাডোতে সরিয়ে নিয়ে আসে। তবে ভূতত্ত্ববিদদের একাংশ মনে করছেন, বিপদ এখনই কাটছে না। ইন্দোনেশিয়ায় সম্প্রতি দু’টি ভূমিকম্প হয়। তার ফলে ভূগর্ভস্থ দু’টি পাতের স্থিতিস্থাপকতা নষ্ট হওয়াতেই এই অগ্ন্যুৎপাত বলে মনে করছেন তাঁরা। প্রসঙ্গত, ইন্দোনেশিয়া ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণেই ভূকম্পপ্রবণ। এই দ্বীপরাষ্ট্রটিতে মোট ১২০টি সক্রিয় আগ্নেয়গিরি রয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Indonesia Volcano Volcanic Eruption
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE