×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১২ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

নীরব-পত্নীর বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস ইন্টারপোলের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৬ অগস্ট ২০২০ ০২:০৯
নীরব এবং অ্যামি মোদী।

নীরব এবং অ্যামি মোদী।

পলাতক হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদীর স্ত্রী অ্যামি মোদীর বিরুদ্ধেও রেড কর্নার নোটিস জারি করল ইন্টারপোল। এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-র এক আধিকারিক আজ এ কথা জানিয়েছেন। পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (পিএনবি) জালিয়াতি মামলায় প্রধান অভিযুক্ত নীরব। তাঁর স্ত্রীয়ের বিরুদ্ধে টাকা নয়ছয়ের অভিযোগে মামলা চলছে। ইডি-র আবেদনের ভিত্তিতেই অ্যামির বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারি করেছে ইন্টারপোল। নীরবের ভাই ও বোনের বিরুদ্ধেও রেড কর্নার নোটিস জারি হয়েছে।

২০১৯ সালে আমেরিকায় শেষ বার দেখা গিয়েছিল অ্যামিকে। তার পর থেকে ইডি নীরবের স্ত্রীর অবস্থান সম্পর্কে সম্পূর্ণ অন্ধকারে। নীরব বর্তমানে লন্ডনের ওয়ান্ডসওর্থ জেলে বন্দি। সেখানে তাঁকে ভারতে প্রত্যর্পণের মামলা চলছে। কোনও পলাতক ব্যক্তির বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারির অর্থ, ইন্টারন্যাশনাল অ্যারেস্ট ওয়ারেন্ট জারি করা। এর ফলে ইন্টারপোলের সদস্য ১৯২টি দেশের যে কোনও জায়গায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে গ্রেফতার বা আটক করা যাবে। তার পরে তাঁকে প্রত্যপর্ণের প্রক্রিয়া শুরু করা যাবে।

পিএনবি-কাণ্ডে প্রতারণা মামলায় নীরবের সঙ্গে অভিযুক্তের তালিকায় অ্যামির নামও রয়েছে। ২০১৮ সালে ভারত থেকে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে পালিয়ে গিয়ে বিদেশে আত্মগোপন করেছেন তিনি। নিউ ইয়র্কের সেন্ট্রাল পার্কে বিপুল অর্থে বিলাসবহুল বাড়ি কেনার মতো আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগও রয়েছে অ্যামির বিরুদ্ধে। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে ওই বাড়ি কেনায় আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগও জানিয়েছিল তদন্তকারী সংস্থা। শুধু অ্যামি নন, ইন্টারপোল রেড কর্নার নোটিস জারি করেছে নীরবের ভাই নেহাল এবং বোন পূরবীর বিরুদ্ধেও। নেহাল আবার বেলজিয়ামের নাগরিক। নীরবের ভাই-বোনের বিরুদ্ধে ব্যাঙ্ক প্রতারণা এবং প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ রয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: নতুন স্ট্রেন! একই ব্যক্তির দ্বিতীয় বার কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা সামনে এল হংকংয়ে

আরও পড়ুন: ফোনে কৈলাস, বাড়িতে মেনন, জোড়া-কথা সেরে শোভন শিবির বলল ‘ভাল আলোচনা’

নীরবের কাছ থেকে পিএনবি প্রথম ধাপে ২৪ কোটি টাকা উদ্ধার করেছে বলে আজ কোম্পানি বিষয়ক মন্ত্রক জানিয়েছে। মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, এই টাকা উদ্ধারের কথা পিএনবি কর্তৃপক্ষ তাদের জানিয়েছেন। আমেরিকায় নীরবের তিনটি সংস্থা থেকে এই টাকা পাওয়া গিয়েছে। মন্ত্রক জানিয়েছে, নীরবের বিরুদ্ধে আমেরিকায় যে দেউলিয়ার আইনি প্রক্রিয়া চলছে, তাতে শামিল হয়ে ব্যাঙ্ককে সহায়তার জন্য কোম্পানি বিষয়ক মন্ত্রকের কাছে সাহায্য চেয়েছে পিএনবি।

পিএনবি-কাণ্ডে আর এক অভিযুক্ত তথা নীরবের মামা মেহুল চোক্সী বর্তমানে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের অ্যান্টিগাতে রয়েছেন। সম্প্রতি ইডি নীরবের মুম্বই, লন্ডন ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহির কয়েকটি ফ্ল্যাট বাজেয়াপ্ত করেছে। গত জুনে নীরব ও মেহুলের প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার গয়না দেশে ফিরিয়েছিল ইডি।

Advertisement