Advertisement
২৩ জুন ২০২৪
Pakistan Crisis

বিধ্বস্ত পাকিস্তান ছেড়ে পালাচ্ছেন লাখ লাখ মানুষ! তালিকায় ইঞ্জিনিয়ার, চিকিৎসক, শিক্ষকও

পাকিস্তানের এমিগ্রেশন অ্যান্ড ওভারসিজ় এমপ্লয়মেন্ট-এর তথ্য বলছে, গত দু’মাসে দেশ ছেড়ে ৬১,৩২১ জন গিয়েছেন সৌদিতে, ২৭, ৫০১ জন সংযুক্ত আরব আমিশাহি এবং ১৩,৭০০ জন কাতারে চলে গিয়েছেন।

Pakistan crisis

আর্থিক, খাদ্যসঙ্কটে জেরবার পাকিস্তানের জনজীবন। ছবি: এএফপি।

সংবাদ সংস্থা
লাহোর শেষ আপডেট: ২১ মার্চ ২০২৩ ১০:৫৭
Share: Save:

যত দিন যাচ্ছে, পাকিস্তানের সাধারণ নাগরিকদের অবস্থা আরও দুর্বিষহ হয়ে উঠছে। আর্থিক এবং খাদ্যসঙ্কটে ধুঁকতে থাকা পাকিস্তানে এ বার কর্মসঙ্কটও ভয়ানক পর্যায়ে পৌঁছেছে। নিজেদের জীবন বিপন্ন হতে পারে এই আশঙ্কা করে লাখো লাখো মানুষ দেশ ছেড়ে পালাচ্ছেন। যে তালিকায় সাধারণ মানুষের পাশাপাশি শিক্ষক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়াররাও রয়েছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলির প্রতিবেদন অনুযায়ী, পাকিস্তানের ব্যুরো অব এমিগ্রেশন অ্যান্ড ওভারসিজ় এমপ্লয়মেন্ট-এর প্রকাশিত তথ্য বলছে, এ বছরের প্রথম দু’মাসেই পাকিস্তান ছেড়ে পালিয়েছেন ১ লক্ষ ২৭ হাজার মানুষ। যাঁদের মধ্যে শ্রমিকের সংখ্যা ৫২ হাজার ৩৯৮, গাড়িচালক ২৯ হাজার ৯৮৯। এ ছাড়াও দেশে ছেড়েছেন ১ হাজার ৩৯৬ জন ইঞ্জিনিয়ার, ১ হাজার ২৫৭ জন হিসাবরক্ষক, ৫৪৯ জন চিকিৎসক এবং ২৪১ জন শিক্ষক।

ব্যুরো অব এমিগ্রেশন অ্যান্ড ওভারসিজ় এমপ্লয়মেন্ট-এর তথ্য বলছে, জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারিতে যে লক্ষাধিক মানুষ দেশ ছেড়েছেন, তাঁদের মধ্যে ৬১ হাজার ৩২১ জন সৌদিতে, ২৭ হাজার ৫০১ জন সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে, ১৩ হাজার ৭০০ জন কাতার এবং ১১ হাজার ৬০ জন ওমানে চলে গিয়েছেন।

এই প্রথম নয়, পাকিস্তান ছেড়ে চলে যাওয়ার বিষয়টি বেশ কয়েক বছর ধরেই চলছে। তবে সে দেশের এমিগ্রেশন দফতরের তথ্য বলছে, ২০১৫ সালে সবচেয়ে বেশি নাগরিক দেশ ছেড়েছেন। সেই সংখ্যা ছিল প্রায় সাড়ে ৯ লক্ষ। আর্থিক সঙ্কট থেকে দেশকে তুলে ধরার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে শাহবাজ় শরিফের সরকার। কিন্তু পাকিস্তানের পুরো ভাগ্যই ঝুলে রয়েছে আন্তর্জাতিক অর্থভান্ডারের (আইএমএফ) উপর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Pakistan Crisis Jobs
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE