Advertisement
২৫ মে ২০২৪
Microsoft

বড় ছাঁটাইয়ের পথে এ বার মাইক্রোসফটও! শীঘ্রই ১১ হাজার কর্মীকে সরাবে বিল গেটসের সংস্থা

মাইক্রোসফটের অন্তত ৫ শতাংশ কর্মী কাজ হারাতে চলেছেন। ওই সূত্র মারফতই জানা গিয়েছে, এ যাত্রায় মূলত কোপ পড়তে চলেছে ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মানবসম্পদ বিভাগে কাজ করা কর্মীদের উপরেই।

শীঘ্রই ১১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করতে চলেছে বিল গেটসের সংস্থা।

শীঘ্রই ১১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করতে চলেছে বিল গেটসের সংস্থা। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নিউ ইয়র্ক শেষ আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০২৩ ১২:০৯
Share: Save:

গুগল, টুইটার, অ্যামাজ়ন, ফেসবুকের পর এ বার মাইক্রোসফট! নতুন বছরের শুরুতেই প্রায় ১১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করার পরিকল্পনা সেরে ফেলেছে বহুজাতিক সংস্থা মাইক্রোসফট। ধনকুবের বিল গেটস প্রতিষ্ঠিত সংস্থাটি এখনও এ বিষয়ে মুখ না খুললেও সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এবং ব্লুমবার্গের তরফে সম্প্রতি এই খবর প্রকাশ্যে আনা হয়েছে।

সংবাদ সংস্থাগুলির তরফে জানানো হয়েছে, সারা বিশ্বে মাইক্রোসফটের মোট কর্মী সংখ্যার অন্তত ৫ শতাংশের কাজ যেতে চলেছে। ওই সূত্র মারফতই জানা গিয়েছে, এ যাত্রায় মূলত কোপ পড়তে চলেছে ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মানবসম্পদ বিভাগে কাজ করা কর্মীদের উপরেই।

এর আগে ২০২২ সালেও ১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করেছিল মাইক্রোসফট। সংস্থার ২ লক্ষ কর্মীদের মধ্যে সে যাত্রায় কাজ খুইয়েছিলেন ১ শতাংশ কর্মী। কিন্তু সাম্প্রতিক কালের মধ্যে এত কর্মীকে ছাঁটাই করার পরিকল্পনা আগে নেয়নি মাইক্রোসফট। ব্রিটেনের স্কাই নিউজ় জানিয়েছে, ৫ শতাংশ কর্মীকে ছাঁটাই করার লক্ষ্য নিয়েই এগোচ্ছে মাইক্রোসফট।

প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগেই আবার কর্মী সঙ্কোচন করার কথা ঘোষণা করেছিলেন অ্যামাজ়নের সিইও অ্যান্ডি জেসি। গত বছরই প্রায় ১৮ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করেছিল অ্যামাজ়ন। ফেসবুকের নিয়ন্ত্রক সংস্থা মেটা ১১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করেছিল। আর টুইটারের মালিকানা পেয়েই ধনকুবের ইলন মাস্ক সংস্থার ৫০ শতাংশ কর্মীকেই পদত্যাগ করতে বাধ্য করেছিলেন। অর্থনৈতিক মহলের একাংশের অনুমান, বিশ্বের রাজনৈতিক ডামাডোল এবং ইউরোপ-আমেরিকায় মুদ্রাস্ফীতির কারণে ২০২৩ সালে সংস্থাগুলি আবার বড় সংখ্যক কর্মীকে ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE