Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
China

প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পাত্তা নেই, চিনে ফের রহস্য

গত ২৯ অগস্ট বেজিং চিন-আফ্রিকা শান্তি মঞ্চের একটি অনুষ্ঠানে লি-কে শেষ বারের মতো বক্তৃতা দিতে দেখা গিয়েছিল। তার পর থেকে তাঁর আর কোনও খোঁজ-খবর নেই।

An image of Xi Jinping

চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
বেজিং শেষ আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৭:৩৯
Share: Save:

জুন মাসের শেষের দিক থেকে দেখা যাচ্ছিল না চিনের তৎকালীন বিদেশমন্ত্রী ছিন গাংকে। তার ঠিক এক মাসের মাথায় ২৫ জুলাই তাঁর স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন ওয়াং ই। এ বার
দু’সপ্তাহ ধরে দেখা যাচ্ছে না চিনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী লি শাংফুকে। এ বারও জল্পনা জোরদার, তাঁরও কি মেয়াদ তবে ফুরনোর পথে?

গত ২৯ অগস্ট বেজিং চিন-আফ্রিকা শান্তি মঞ্চের একটি অনুষ্ঠানে লি-কে শেষ বারের মতো বক্তৃতা দিতে দেখা গিয়েছিল। তার পর থেকে তাঁর আর কোনও খোঁজ-খবর নেই। এ দিকে জুলাই মাসেই প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং চিনা সেনবাহিনীর রকেট বিভাগের দুই শীর্ষ কর্তাকেও পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছেন। ঘটনাচক্রে তাঁদেরও বেশ কিছু দিন ধরে প্রকাশ্যে দেখা যাচ্ছিল না। ফলে এ বার লি শাংফুকে নিয়ে জল্পনা তৈরি হওয়াটা একেবারে অমূলক নয় বলেই মনে করা হচ্ছে।

লক্ষণীয়, এ মাসের ৯ তারিখ প্রেসিডেন্ট শি নিজে সেনাবাহিনীতে সংহতি এবং ঐক্য বজায় রাখার বার্তা দিয়েছেন। ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, প্রেসিডেন্টের এই বার্তা এবং সেনাবাহিনীতে রদবদল আসলে একটি দুর্নীতিদমন অভিযানের অঙ্গ। গত পাঁচ বছরে সেনাবাহিনী কী কী কিনেছে, তাতে কী ধরনের ‘ডিল’ হয়েছিল, কোনও তথ্য পাচার হয়েছে কি না— এই সবই এখন আতশকাচের তলায়। লি-র বেপাত্তা হয়ে যাওয়ার সঙ্গে এর সম্পর্ক থাকতেও পারে বলে মনে করছেন অনেকে। ১৯৮২ সালে বাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন লি। এ বছর মার্চে তিনি প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

আগাথা ক্রিস্টির একটি বিখ্যাত উপন্যাসের নাম ছিল, অ্যান্ড দেন দেয়ার ইজ় নান (এবং তার পর সেখানে আর কেউ নেই)। জাপানে আমেরিকার দূত রাহম ইমানুয়েল সে কথা স্মরণ করিয়ে এক্স, মানে সাবেক টুইটার হ্যান্ডলে লিখেছেন, ‘‘শি-র মন্ত্রিসভাটা ক্রমশ আগাথা ক্রিস্টির উপন্যাসের মতো হয়ে যাচ্ছে। অ্যান্ড দেন দেয়ার ইজ় নান!
প্রথমে বিদেশমন্ত্রী নিখোঁজ! তার পর রকেট বাহিনীর দুই কর্তা নিখোঁজ! এখন আবার প্রতিরক্ষামন্ত্রীও নিখোঁজ!’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE