Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২

খুদে যমজের কীর্তি

ঘরের কোণে একটা মাঝারি আলমারি। আর তা বেয়ে ওঠার চেষ্টায় ব্যস্ত বছর দুয়েকের যমজ ছেলে। মুহূর্তেই উল্টে গেল আলমারি। আর তার তলায় চাপা পড়ে গেল দুই খুদে!

সংবাদ সংস্থা
উটা শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০১৭ ০২:৪৯
Share: Save:

ঘরের কোণে একটা মাঝারি আলমারি। আর তা বেয়ে ওঠার চেষ্টায় ব্যস্ত বছর দুয়েকের যমজ ছেলে। মুহূর্তেই উল্টে গেল আলমারি। আর তার তলায় চাপা পড়ে গেল দুই খুদে!

Advertisement

শুক্রবার ঘুম ভেঙে বাচ্চাদের ঘরে থাকা ক্যামেরায় এমন দৃশ্য দেখে প্রথমে হাড় হিম হয়ে গিয়েছিল উটার শফ দম্পতির। কিন্তু ভিডিও যত এগোল, ততই আশ্চর্য হয়ে গেলেন তাঁরা। দেখলেন, বড় ছেলে বোডি হাঁকপাঁক করে বেরিয়ে এল। কিন্তু আলমারির তলায় তখনও আটকে ছোট ছেলে ব্রক। শুধু দেখা যাচ্ছে তার ছোট্ট দু’টো পা। তা দেখে ভাইকে বাঁচাতে ঝাঁপিয়ে পড়ল বোডি। প্রথমে সামনে থেকে কিছু ক্ষণ, তার পর পিছন থেকে ঠেলে অনেক চেষ্টায় ভাইকে বার করে আনল সে।

যমজদের বাবা রিকি-ই ইন্টারনেটে দু’মিনিটের ওই ভিডিও পোস্ট করেন। এবং মুহূর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে সেটি। শফ দম্পত্তি জানিয়েছেন, খুব ছোট সন্তানদের বাবা-মাকে সচেতন করার জন্যই তাঁরা সিসিটিভি-র ফুটেজ পোস্ট করেছেন। রিকির কথায়, ‘‘আমাদের বাড়ি শিশুদের জন্য যথেষ্ট নিরাপদ। কিন্তু আলমারিটা দেওয়ালে পেরেক দিয়ে আটকে রাখা উচিত ছিল। তা হলে এই অঘটন ঘটত না।’’

যে সংস্থাটি আলমারিটা বানিয়েছে, কিছু দিন আগেই তাদেরই বানানো এক আলমারি ঘাড়ে পড়ে মারা গিয়েছে তিনটি শিশু। সংস্থাটির বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়েছে। তবে শফ-শিশুদের দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে সংস্থার দাবি, তাদের আলমারির ‘ম্যানুয়াল’-এ স্পষ্ট লেখা থাকে, ভারী আসবাব দেওয়াল বা মেঝেতে আটকে রাখা উচিত। তাই এ ব্যাপারে অভিভাবকদের সতর্ক থাকা উচিত।

Advertisement

ছবি: সোশ্যাল মিডিয়ার সৌজন্যে

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.