• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

তথ্য ভুলে গিয়েছেন, দাবি অনিলের

Anil
ইডির দফতরে অনিল অম্বানী।—ছবি পিটিআই।

টানা ন’ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি)। কিন্তু সূত্রের খবর, ইয়েস ব্যাঙ্কের সঙ্গে তাঁর গোষ্ঠীর সংস্থাগুলির লেনদেন সম্পর্কে বিশেষ কোনও তথ্য দিতে পারেননি রিলায়্যান্স গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান অনিল অম্বানী। দাবি করেছেন, এ ব্যাপারে বিশেষ কিছু মনে নেই তাঁর। আগামী ৩০ মার্চ তাঁকে ‘তৈরি হয়ে’ ফের হাজিরা দিতে বলেছেন ইডি অফিসারেরা। 

ইয়েস ব্যাঙ্কের প্রোমোটার রাণা কপূরের বিরুদ্ধে বেআইনি আর্থিক লেনদেনের তদন্তে বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে ইডির অফিসে হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল অনিলকে। আজ সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ সেখানে যান তিনি। বার হন সন্ধ্যা প্রায় ৭টায়। তাঁর গোষ্ঠীর ন’টি সংস্থা ব্যাঙ্কটি থেকে ১২,৮০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিল। অনিলের দাবি, সেই বকেয়া পুরোপুরি নিরাপদ। 

পাশাপাশি, এসেল গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান তথা রাজ্যসভার সাংসদ সুভাষ চন্দ্রকেও শনিবারের মধ্যে হাজিরা দিতে বলেছে ইডি। গত বুধবার তাঁর হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সংসদের অধিবেশনকে কারণ হিসেবে দেখিয়ে হাজিরা দেননি তিনি। 

এ দিকে, বুধবার থেকে পুরোদস্তুর পরিষেবা চালু করেছে ইয়েস ব্যাঙ্ক। এই অবস্থায় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক জানাল, ব্যাঙ্কটির নগদের প্রয়োজনে ৬০,০০০ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ দেবে তারা। গত ৩১ ডিসেম্বর ব্যাঙ্কের হাতে ২.০৯ লক্ষ কোটির আমানত ছিল। কিন্তু তার পর থেকে গ্রাহকেরা ৭২,০০০ কোটি তুলে নিয়েছেন। এখন তহবিল ১.৩৭ লক্ষ কোটির। এই অবস্থায় ইয়েস ব্যাঙ্কের নগদের সমস্যা যাতে না-হয়, সে জন্য রিজার্ভ ব্যাঙ্কের এই বিকল্প ব্যবস্থা। গ্রাহকদের আশ্বাস দিয়ে শীর্ষ ব্যাঙ্ক গভর্নর শক্তিকান্ত দাস বলেছেন, ‘‘ইয়েস ব্যাঙ্কের হাতে যথেষ্ট নগদ আছে। শীর্ষ ব্যাঙ্ক সাহায্য করতে তৈরি। ...গ্রাহকদের টাকা নিরাপদ।’’ 

এর আগে ২০০৪ সালে গ্লোবাল ট্রাস্ট ব্যাঙ্ক দেউলিয়া হওয়ার সময়ে তাকে ওরিয়েন্টাল ব্যাঙ্ক অব কমার্সের সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়। তখনও নগদের ব্যবস্থা করতে একই ভাবে উদ্যোগী হয়েছিল শীর্ষ ব্যাঙ্ক।

আজ ইয়েস ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, পুরীর জগন্নাথ মন্দির কর্তৃপক্ষের ৩৮৯ কোটি টাকার মেয়াদি আমানতের অ্যাকাউন্ট স্টেট ব্যাঙ্কে সরানো হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন