সেপ্টেম্বরের পাঁচ দিন কেটে গিয়েছে। অথচ এখনও অগস্টের বেতন পাননি বিএসএনএল কর্মীরা। বৃহস্পতিবার এ নিয়ে সংস্থার সিএমডি পি কে পুরওয়ার ও ডিরেক্টর (ফিনান্স) এস কে গুপ্তের সঙ্গে বৈঠকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কর্মী সংগঠন বিএসএনএল এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট অনিমেষ মিত্র ও সাধারণ সম্পাদক পি অভিমন্যু। 

অনিমেষবাবুর অভিযোগ, কবে বেতন হবে তা স্পষ্ট করে জানাতেই পারেননি দুই শীর্ষ কর্তা। শুধু বলেছেন, কেন্দ্রের থেকে টাকা আসেনি। তবে পুরওয়ারের আশ্বাস, সংস্থার আয় থেকে বেতন বণ্টনের চেষ্টা করা হচ্ছে। অনিমেষবাবুদের প্রশ্ন, বেসরকারি সংস্থা যখন নতুন করে ল্যান্ডলাইন পরিষেবা আনছে, তখন দীর্ঘ দিন ধরে সেই পরিষেবা চালানোর অভিজ্ঞতা থাকা সত্ত্বেও রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিএসএনএলের পুনরুজ্জীবনে কেন গুরুত্ব দিচ্ছে না কেন্দ্র? তাঁদের সংশয়, এ নিয়ে টালবাহানা করে প্রতিযোগিতার বাজারে ইচ্ছে করেই সংস্থাকে পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে না তো! 

পরে ওই ইউনিয়নের সাইটে বলা হয়, ঠিকা কর্মীদের ৮ মাস বেতন বাকির কথাও বৈঠকে ওঠে। কিন্তু কর্তৃপক্ষের দাবি, এই অর্থ সংস্থানের সম্ভাবনা এখন নেই। এমটিএনএলেও দু’মাস বেতন বাকি।