এ বার ঋণভারে জর্জরিত জেট এয়ারওয়েজের সঙ্গে সব সম্পর্ক কার্যত ছিন্ন করলেন প্রতিষ্ঠাতা নরেশ গয়াল ও তাঁর স্ত্রী অনিতা। এয়ারওয়েজের বোর্ডেও আর তাঁদের কোনও শেয়ার থাকছে না। তাঁদের সেই সিদ্ধান্তের কথা এয়ারওয়েজের বোর্ডকে জানিয়ে দিয়েছেন নরেশ। গত মাসে সস্ত্রীক নরেশ এয়ারওয়েজের বোর্ড থেকে ইস্তফা দেন।

মঙ্গলবারই মুম্বইয়ে এয়ারওয়েজের বোর্ড মিটিং। জেট সূত্রের খবর, দ্রুত সমস্যা সমাধানের পথ খোঁজার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের সচিবকে।

ও দিকে, যে কোনও মুহূর্তে সাময়িক ভাবে জেট এয়ারওয়েজ সব উড়ান বন্ধ করে দিতে পারে, এই খবর রটে যাওয়ার প্রেক্ষিতে, বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ (বিএসই) সংস্থাটির বক্তব্য জানতে চেয়েছে। বিএসই-র একটি সূত্র বলছে, জেট এয়ারওয়েজ এখনও কিছু জানায়নি।

আরও পড়ুন- অনিশ্চয়তা বাড়ছে, ধর্নায় ঠিকা কর্মীরা​

আরও পড়ুন- কর্মীরা উদ্বিগ্ন, আরও জটিল জেটের জট​

কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রী সুরেশ প্রভু জানিয়েছেন, জেট এয়ারওয়েজের বিষয়টি খতিয়ে দেখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মন্ত্রকের সচিব প্রদীপ সিংহ খারোলাকে।