ফের বড় মাপের লাফ দিল শেয়ার বাজার। তবে বৃহস্পতিবারের মতো শুক্রবার শেষ পর্যন্ত মুখ থুবড়ে পড়েনি সূচক। সেনসেক্স বেড়েছে ৬২৩.৩৩ পয়েন্ট। নিফ্‌টি ১৮৭.০৫ পয়েন্ট। বাজার বন্ধের সময়ে নতুন রেকর্ড গড়ে সেনসেক্স থামে ৩৯,৪৩৪.৭২ অঙ্কে। আর নিফ্‌টি ১১,৮৪৪.১০ অঙ্কে। চলতি সপ্তাহে নিট হিসেবে সেনসেক্স বেড়েছে ১,৫০৩ পয়েন্ট।

এ দিন বেড়েছে টাকার দামও। প্রতি ডলারের দাম ৪৯ পয়সা কমে দাঁড়িয়েছে ৬৯.৫৩ টাকা। বাজারে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি বিনিয়োগ করায় জোগান বেড়েছে ডলারের। ফলে কমেছে তার দাম। এ দিন ওই সব সংস্থা শেয়ার কিনেছে ২,০২৬.৩৩ কোটি টাকার। এই নিয়ে দু’দিনে তাদের লগ্নি দাঁড়াল ৩,৩৭৮ কোটি।

বাজারের আশা, এ বার অসমাপ্ত সংস্কারগুলি শেষ করার পাশাপাশি আরও কিছু নতুন সংস্কার আনবে মোদী সরকার। তাই সে দিকে তাকিয়ে তারা। এর সঙ্গেই লগ্নিকারীদের চোখ এখন বাজেটের দিকে। জুলাইয়ের গোড়ায় যা পেশ করার কথা। তত দিন বাজারে স্থিতিশীলতা আসার সম্ভাবনা কম বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ক্যালকাটা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রাক্তন ডিরেক্টর এস কে কৌশিক বলেন, ‘‘সংস্কার নিয়ে নতুন সরকারের পরিকল্পনা কী, তা অনেকটাই বাজেটে বোঝা যাবে বলে আশা। যার উপরে বাজারের গতি নির্ভর করবে।’’ অবশ্য তার আগে জুনের শুরুতে ঋণনীতি পর্যালোচনায় বসবে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। বিশেষজ্ঞদের মতে, সেখানে নেওয়া সিদ্ধান্তও সূচকে প্রভাব ফেলবে।