বুথফেরত সমীক্ষা দেখে রেকর্ড উত্থানের চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই গোঁত্তা খেল শেয়ার বাজার। সেনসেক্স এবং নিফ্‌টি নামল যথাক্রমে ৩৮২.৮৭ ও ১১৯.১৫ পয়েন্ট। বাজার বন্ধের সময়ে তারা দাঁড়াল ৩৮,৯৬৯.৮০ এবং ১১,৭০৯.১০ অঙ্কে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এর মূল কারণ চড়া বাজারে মুনাফা ঘরে তোলার হিড়িক আর সমীক্ষা মেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা।

ক্যালকাটা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রাক্তন ডিরেক্টর এস কে কৌশিক বলেন, ‘‘সোমবার বাজারের অতখানি উত্থান যে একেবারে স্বাভাবিক নয়, এক দিনের মধ্যেই লগ্নিকারীরা তা বুঝতে পারায় পড়েছে সূচক। সমীক্ষার বাস্তবতা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধন্ধ।’’ বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি ১,১৮৫ কোটি টাকার শেয়ার কেনা সত্ত্বেও।

বিএনকে ক্যাপিটাল মার্কেটসের এমডি অজিত খান্ডেলওয়াল বলেন, ‘‘সব থেকে চিন্তার বিষয় আন্তর্জাতিক বাজারে অশোধিত তেলের দাম বৃদ্ধি। আশঙ্কা, দাম আরও বাড়তে পারে। তার বিরূপ প্রভাব দেশের অর্থনীতিতেও পড়বে।’’

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

কৌশিক বলেন, ‘‘শুধু তেলের দাম নয়, বেশ কিছু শিল্প ও বাণিজ্যিক সংস্থার গত আর্থিক বছরে ফল তেমন ভাল হয়নি। তা ছাড়া, বাণিজ্য যুদ্ধ-সহ আরও কিছু সমস্যার বিরূপ প্রভাব দেশের অর্থনীতিতে পড়ার সম্ভাবনা।’’ এক বছরের মধ্যে নিফ্‌টি ১০ হাজারের ঘরে নেমে গেলেও তিনি অবাক হবেন না বলে তাঁর দাবি।