Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

লক্ষ্য বেসরকারিকরণ, নজরে দুই বিমা সংস্থা

অতিমারির জন্য চলতি অর্থবর্ষে বিলগ্নিকরণের লক্ষ্যমাত্রার ধারেকাছে পৌঁছনো যাবে না বলে মেনে নিয়েছে কেন্দ্র।

  সংবাদ সংস্থা 
নয়াদিল্লি ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৬:৫৫
Save
Something isn't right! Please refresh.


প্রতীকী চিত্র

Popup Close

আগামী অর্থবর্ষে দু’টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক এবং একটি সাধারণ বিমা সংস্থার বেসরকারিকরণ করা হবে বলে বাজেটে ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। ইতিমধ্যে চারটি মাঝারি মাপের ব্যাঙ্ককে এর জন্য চিহ্নিতও করা হয়েছে। সরকারি সূত্রের খবর, বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রের নজরে রয়েছে সাধারণ বিমা সংস্থা ওরিয়েন্টাল ইনশিয়োরেন্স এবং ইউনাইটেড ইন্ডিয়া ইনশিয়োরেন্স। এমনকি, শেয়ার বাজারে নথিভুক্ত নিউ ইন্ডিয়া অ্যাশিয়োরেন্সে সরকারের ৮৫.৪৪% অংশীদারি বিক্রির সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট মহল। তবে সংস্থাগুলির আর্থিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে যে কোনও একটির বেসরকারিকরণ করা হবে।

অতিমারির জন্য চলতি অর্থবর্ষে বিলগ্নিকরণের লক্ষ্যমাত্রার ধারেকাছে পৌঁছনো যাবে না বলে মেনে নিয়েছে কেন্দ্র। তবে আগামী বছর ওই খাতে ১.৭৫ লক্ষ কোটি টাকা রাজকোষে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে মোদী সরকারের। এর মধ্যে বড় অংশ আসার কথা এয়ার ইন্ডিয়া, ভারত পেট্রোলিয়াম, দু’টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক এবং একটি সাধারণ বিমা সংস্থার বেসরকারিকরণের মাধ্যমে। হবে এলআইসি-র বিলগ্নিকরণও। চালু নিয়ম অনুযায়ী, কোন সংস্থার বেসরকারিকরণ করা হবে তার প্রাথমিক তালিকা তৈরি করার কথা নীতি আয়োগের। তার পরে অর্থ মন্ত্রকের অধীনে থাকা বিনিয়োগ ও সরকারি সম্পদ পরিচালনা দফতরের ওই ব্যাপারে চূড়ান্ত সুপারিশ করবে।

এ দিকে, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বেসরকারিকরণ এবং বিমায় প্রত্যক্ষ বিদেশি লগ্নি (এফডিআই) বাড়ানোর সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আন্দোলন কর্মসূচি নিয়েছে এলআইসি এবং সাধারণ বিমা সংস্থার কর্মী সংগঠনগুলি। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি সাধারণ বিমা সংস্থাগুলির অফিসে বিক্ষোভ দেখানোর কথা তাঁদের।

Advertisement

আগে কেন্দ্র ঠিক করেছিল, ন্যাশনাল ইনশিয়োরেন্স, ইউনাইটেড ইন্ডিয়া ইনশিয়োরেন্স এবং ওরিয়েন্টাল ইনশিয়োরেন্সকে মিশিয়ে দিয়ে নতুন সংস্থাটিকে শেয়ার বাজারে নথিভুক্ত করা হবে। পরে সেই পরিকল্পনা থেকে সরে আসে তারা। বরং সংস্থা তিনটিকে আলাদা রেখেই ঢালতে শুরু করে মূলধন। চলতি ত্রৈমাসিকেও সেগুলিতে ৩০০০ কোটি টাকা ঢালার কথা জানিয়েছে তারা। সরকারি সূত্রের বক্তব্য, বেসরকারিকরণের আগে সংস্থাগুলির আর্থিক স্বাস্থ্য ভাল করাই কেন্দ্রের উদ্দেশ্য। টানা কয়েক দফা পুঁজি ঢালার পরে সংস্থাগুলির আর্থিক অবস্থা এখন আগের তুলনায় ভালও। অন্য দিকে, সরকারি সূত্রের খবর, দু’টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের বেসরকারিকরণের উদ্দেশ্যে প্রাথমিক ভাবে চারটিকে তালিকাভুক্ত
করা হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Tags:
Something isn't right! Please refresh.

Advertisement