শহরের পার্টিতে মাদক পাচার করতে এসে ধরা পড়ে গেল অসমের এক ব্যক্তি। পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার বেনিয়াপুকুর এলাকা থেকে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতের নাম মুহিবুর রহমান। তার কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকার মাদক ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, শহরে এসে তিলজলা রোডের একটি হোটেলে উঠেছিল অসমের নওগাঁর বাসিন্দা মুহিবর। সঙ্গে ছিল হাজারখানেক ট্যাবলেট।

‘পার্টি ড্রাগ’ নামে বেশি পরিচিত ওই ট্যাবলেটগুলি আসলে মেথামফেটামাইন। অনেকে একে ইয়াবা ট্যাবলেটও বলেন। এক একটি ট্যাবলেটের দাম দেড়শো টাকা। মুহিবুরের কাছ থেকে এ রকম হাজারখানেক ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। যার বাজারদর প্রায় দেড় লক্ষ টাকা। পুলিশ জানিয়েছে, অসম থেকে কলকাতায় এসে প্রায়শই মাদক পাচার করত বছর ছেচল্লিশের মুহিবর। মূলত মায়ানমার বা ইম্ফল থেকে ওই ট্যাবলেটগুলি সংগ্রহ করত সে। কলকাতায় আসার আগে সে মণিপুরেও গিয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: ‘নিজেকে আবিষ্কার করতেই ঘর ছেড়েছিলাম’, উদ্ধার হওয়ার পর বলল বাঁশদ্রোণীর প্রীতম

আরও পড়ুন: রাতের জলসায় শরীরী ঝিলিক, উঠছে আপত্তি

মুহিবর রহমানের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া মাদক ট্যাবলেট। —নিজস্ব চিত্র।

পুলিশ সূত্রে খবর, দিওয়ালি কাছাকাছি আসতেই শহরের বিভিন্ন পার্টিতে এ ধরনের নিষিদ্ধ ড্রাগের রমরমা বাড়ে। দিওয়ালি পার্টিতে ওই মাদক ট্যাবলেটগুলি চড়া দামে বিক্রি করাই উদ্দেশ্য ছিল মুহিবুরের। তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই মামলা রুজু করেছে বেনিয়াপুকুর থানা।

(কলকাতা শহরের রোজকার ঘটনার বাছাই করা বাংলা খবর পড়তে চোখ রাখুন আমাদের কলকাতা বিভাগে।)