• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দুই ছাত্রীর সামনে হস্তমৈথুন, বেহালায় ভিডিয়ো প্রমাণ-সহ অভিযুক্তকে পুলিশের হাতে তুলে দিল এলাকাবাসী

representational photo
অলঙ্করণ: তিয়াসা দাস।

Advertisement

চার দিন ধরে  দুই কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্ত করছিলেন এক ব্যক্তি। অভিযোগ, স্থানীয় এক পার্কে ওই দুই বন্ধু সময় কাটাতে গেলে তাঁদের দেখে হস্তমৈথুনে করছিলেন তিনি। অবশেষে উপস্থিত বুদ্ধির জোরেই সেই অভিযুক্তকে  পুলিশের হাতে ধরিয়ে দিলেন ওই ছাত্রীরা। 

বেহালা থানার হিন্দুস্তান পার্ক এলাকার ঘটনা।  সেখানকার দুই কলেজ ছাত্রীর অভিযোগ, গত চার দিন ধরে শেখ সেলিমউদ্দিন নামের এক ব্যক্তি তাঁদের অনুসরণ করছিলেন। রবিবার এলাকার এক পার্কে গেলে পিছনে পিছনে পৌঁছে যান মধ্য চল্লিশের ওই ব্যক্তিও। ওই ছাত্রীরা জানিয়েছেন, পার্কের গেটের সামনে প্রকাশ্যেই হস্তমৈথুন করতে থাকেন তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দুই ছাত্রী পাড়ার লোককে বিষয়টি জানান রবিবারই। ঠিক হয়, পরদিন ফের পার্কে যাবেন ওই তরুণীরা। ওই ব্যক্তি ঘটনার পুনরাবৃত্তি করলে, প্রমাণ জোগাড়ের জন্যে ঘটনা ভিডিও  করা  হবে।  সেই কথা মতোই সোমবার আরও এক বান্ধবীকে নিয়ে পার্কে আসেন তাঁরা। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় ওই ব্যক্তিও। অভিযোগ, টিকটক ভিডিও করার ছলে মোবাইল ক্যামেরা অন করলে, ওই ব্যক্তি ক্যামেরাবন্দি হয়ে যায় হস্তমৈথুনরত অবস্থায়। এই সময়েই পাড়ার লোকেরা হাতেনাতে সেই ব্যক্তিকে ধরেও ফেলে । বেহালা থানায় খবর দিলে থানার পুলিশ এসে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। পুলিশের হাতে ভিডিও ফুটেজটি প্রমাণ হিসেব তুলে দেওয়া হয়।  ভিডিওটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। 

আরও পড়ুন:ডেউচা-পাঁচামিতে হস্তক্ষেপে প্রস্তুত, বার্তা রাজ্যপালের, আরও বাড়তে পারে সংঘাত
আরও পড়ুন:নির্ভয়া-কাণ্ডে অপরাধীদের নিজের হাতেই ফাঁসি দিতে চান নাটার ছেলে মহাদেব মল্লিক

 

এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে  ডিসি দক্ষিণ পশ্চিম নীলাঞ্জন বিশ্বাসকে বারবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি। ফোন সুইচ অফ পাওয়া গিয়েছে বেহালা থানার ওসিরও। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন