Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Prasun Banerjee

দিল্লি ডায়েরি: পদকজয়ীদের সংবর্ধনা, প্রসূনের মনোবেদনা

সরাসরি সংসদে অনুরাগ ঠাকুরের সঙ্গে দেখা করে তাঁর মনোবেদনা জানিয়েছেন এই সাংসদ ফুটবলার।

বিশ্বসেরা: দিল্লিতে কেন্দ্রের সংবর্ধনাসভায় অলিম্পিক্সে স্বর্ণপদক জয়ী নীরজ চোপড়া

বিশ্বসেরা: দিল্লিতে কেন্দ্রের সংবর্ধনাসভায় অলিম্পিক্সে স্বর্ণপদক জয়ী নীরজ চোপড়া

প্রেমাংশু চৌধুরী, অগ্নি রায়
শেষ আপডেট: ১৫ অগস্ট ২০২১ ০৬:০০
Share: Save:

অলিম্পিক্স থেকে মেডেল জিতে ফেরা ক্রীড়াবিদদের রাজধানীতে আড়ম্বরপূর্ণ সংবর্ধনার আয়োজন করেছে কেন্দ্র। উপস্থিত বর্তমান এবং প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর এবং কিরেন রিজিজু। কিন্তু দিল্লিতে থাকা সত্ত্বেও ডাক পেলেন না অর্জুন পুরস্কারপ্রাপ্ত ফুটবলার এবং ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। রুষ্ট প্রসূনের বক্তব্য, তবে কি তৃণমূলের সাংসদ হওয়ার কারণেই তাচ্ছিল্য? সরাসরি সংসদে অনুরাগ ঠাকুরের সঙ্গে দেখা করে তাঁর মনোবেদনা জানিয়েছেন এই সাংসদ ফুটবলার। কিন্তু অনুরাগ তাঁকে বলেছেন, “দাদা আপনি তো ফুটবলার! তাই আর ডাকা হয়নি।” হতবাক প্রসূনের বক্তব্য, “আমি ফুটবলার বলে এক জন অ্যাথলিটকে অভিনন্দন জানানোর সুযোগ পাব না!”

Advertisement

ধন্য আশা

বাবা সতনাম সিংহ বাজওয়া পঞ্জাবের মন্ত্রী, তিন বারের বিধায়ক। ছেলে প্রতাপ সিংহ বাজওয়া কংগ্রেসের ছাত্র, যুব সংগঠন থেকেই রাজনীতি করছেন। বিয়ন্ত সিংহ, রাজেন্দ্র কৌর, অমরেন্দ্র সিংহ— তিন মুখ্যমন্ত্রীর সরকারে মন্ত্রী। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ছিলেন। তাঁর সঙ্গে বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্রর সংঘাত সুবিদিত। পঞ্জাব কংগ্রেসে অমরেন্দ্র বনাম নভজ্যোৎ সিংহ সিধুর লড়াইয়ে বাজওয়ার আশা ছিল, তাঁর গুরুত্ব বাড়বে। কিন্তু সিধুই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি হওয়ায় বাজওয়া চাপে। নেতাদের ধারণা, প্রচারের আলো কাড়তেই বাজওয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে সরব হয়ে রাজ্যসভার সচিবালয়ের টেবিলে উঠে পড়েছিলেন। চেয়ারম্যানের চেয়ারের দিকে ফাইল ছোড়ায় তাঁর নিন্দা হলেও, পঞ্জাবের জাঠ নেতার আশা যে, বিধানসভা ভোটে দাঁড়ালে রাজ্যের কৃষকদের ভোট তাঁর দিকে উড়ে আসবে।

নৈশভোজে রসভঙ্গ

Advertisement

কপিল সিব্বল চাঁদনি চকের সাংসদ ছিলেন। তাঁর জন্মদিনের নৈশভোজেও পুরনো দিল্লির চাঁদনি চকের খাবারদাবার! কিন্তু সিব্বলের নৈশভোজের আমন্ত্রণে শশী তারুর, মনীশ তিওয়ারিরা থাকলেও রাজস্থানের সচিন পাইলট হাজির হননি। সিব্বলরা কংগ্রেসের বিক্ষুব্ধ জি-২৩ গোষ্ঠীর সদস্য বলে পরিচিত। পাইলট রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌতের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে সরকার ও দলে গদি হারিয়েছিলেন। এখন তা ফিরে পাওয়ার আশা করছেন। তাই কি বিক্ষুব্ধ নেতার নৈশভোজে গিয়ে ঝুঁকি নিতে চাননি? আমন্ত্রণে সাড়া না দেওয়ায় পাইলটের উপরে অবশ্য বাকিরা কিঞ্চিৎ চটেছেন।

ভূস্বর্গ জমজমাট

দু’-এক দিন বৃষ্টি হয়েছে। তবু আগাগোড়া উত্তপ্ত থেকেই সাঙ্গ সংসদের বাদল অধিবেশন। বিরতিতে মনোহর প্রকৃতি এবং আবহাওয়ায় সময় কাটানোর সুযোগ পাবেন সাংসদেরা। মাসখানেকের মধ্যে দু’শোরও বেশি সাংসদ যাচ্ছেন ভূস্বর্গে, আটটি সংসদীয় কমিটির কাশ্মীর সফরের সদস্য হিসেবে। পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি, নগরোন্নয়ন, স্বরাষ্ট্র, শ্রম, রেল, শক্তি, বিদেশ এবং বাণিজ্য মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটির সদস্যদের জম্মু ও কাশ্মীর সফর স্থির হয়েছে সেপ্টেম্বরের মধ্যে।

স্বাদে বাড়ে হাতে খেলে

স্বাদু: কাঁটাচামচে দোসা খাচ্ছেন এলিস

স্বাদু: কাঁটাচামচে দোসা খাচ্ছেন এলিস

কর্নাটক সফরে গিয়ে হাতে খাওয়ার মজা আবিষ্কার করলেন ভারতে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাই কমিশনার অ্যালেক্স এলিস। সম্প্রতি তিনি ছবি টুইট করেন। লেখেন, “মাইসুুরুর সুস্বাদু মসালা দোসা। প্রথম বেঙ্গালুরু সফরের শুরুটা বেশ ভালই হল!” কিন্তু গোল বাধল সঙ্গের ছবিতে। তাতে কাঁটাচামচ দিয়ে দোসাকে বাগানোর চেষ্টা করছেন সাহেব! সমাজমাধ্যমে ভারতীয়দের অসংখ্য পরামর্শের পর, আরও একটি ছবি দেন অ্যালেক্স! সেখানে সরাসরি হাত দিয়েই খাচ্ছেন দোসা। কোন ছবিটায় প্রাতরাশ জমজমাট? ভোট চান জনতার। ফল পেয়ে লেখেন, “৯২% টুইটার ঠিক! হাত দিয়ে খেলে দোসার স্বাদ বাড়ে!”

দালতে নতুন

সুপ্রিম কোর্টে মামলায় প্রধান বিচারপতির এজলাস। ভার্চুয়াল শুনানি। যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দিল। আইনজীবী অঞ্জনা প্রকাশকে বিচারপতিরা টিভির পর্দায় দেখতে পাচ্ছেন। কিন্তু শুনতে পাচ্ছেন না। অঞ্জনা বিচারপতিদের কথা শুনতে পাচ্ছেন। বিচারপতিরা প্রশ্ন করলেন, অঞ্জনা কত দিন পরে পরবর্তী শুনানি চাইছেন? অঞ্জনা দু’আঙুল তুলে বোঝালেন, দু’সপ্তাহ। প্রধান বিচারপতি এন ভি রমণা হতাশ হয়ে বললেন, “আদালতের ভাগ্যে কী দিন এল! সাইন ল্যাঙ্গোয়েজে কথাবার্তা বলতে হচ্ছে!”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.