Advertisement
১৫ জুন ২০২৪
CBSE Board

নবম ও একাদশে নতুন কর্মমুখী শিক্ষার বিষয় যোগ সিবিএসই-র, নতুন পাঠ্যক্রম ষষ্ঠ থেকে অষ্টমেও

বর্তমানে আনুমানিক ২২০০০ টি সিবিএসই বোর্ড স্বীকৃত স্কুলে ২ লক্ষেরও বেশি ছাত্রছাত্রী নিয়োগমুখী শিক্ষার বিষয়গুলি পড়ছে।

সিবিএসই।

সিবিএসই। সংগৃহীত ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ জানুয়ারি ২০২৩ ১৮:৫১
Share: Save:

জাতীয় শিক্ষানীতির প্রস্তাবগুলিকে বাস্তবায়নের জন্য ইতিমধ্যেই সিবিএসই-র তরফে ছাত্রছাত্রীদের চাকরির জন্য দক্ষতা বৃদ্ধির পাঠ দেওয়া শুরু করেছে। এ বার সার্কুলার জারি করে বোর্ড স্বীকৃত স্কুলগুলিতে নবম ও একাদশ শ্রেণিতে আরও কিছু নতুন নিয়োগমুখী শিক্ষার বিষয় এবং ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণিতে এই সংক্রান্ত বিভিন্ন পাঠ্যক্রম চালুর কথা ঘোষণা করেছে সিবিএসই।

বর্তমানে আনুমানিক ২২০০০ টি সিবিএসই-স্বীকৃত স্কুলে ২ লক্ষেরও বেশি ছাত্রছাত্রী কর্মমুখী শিক্ষার বিষয়গুলি পড়ছে। নবম ও দশম শ্রেণিতে মোট ২২টি এবং একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে মোট ৪৩টি কর্মমুখী শিক্ষার বিষয় পড়ার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে স্কুলগুলিতে। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী, নবম শ্রেণিতে যে বিষয়গুলি যোগ করা হয়েছে, সেগুলি হল-- ইলেকট্রনিক্স ও হার্ডওয়্যার, বিজ্ঞান বিষয়ে প্রাথমিক দক্ষতা, নকশা পরিকল্পনা ও উদ্ভাবন। এই বিষয়গুলি ছাড়াও একাদশ শ্রেণিতে যোগ হয়েছে আরও কিছু বিষয়।

সার্কুলার অনুযায়ী, ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণিতেও নিয়োগমুখী শিক্ষার ৩৩টি পাঠ্যক্রম পড়ানো হবে। সপ্তাহে ১২-১৫ ঘন্টার ক্লাস নেওয়া হবে এই বিষয়গুলির। যার মধ্যে ৭০ শতাংশ সময় হাতেকলমে কাজ শেখানোর জন্য এবং ৩০ শতাংশ সময় বিষয়গুলির থিওরি পড়ানোর জন্য বরাদ্দ করা হবে। ছাত্রছাত্রীরা এক বা একাধিক কর্মমুখী শিক্ষার বিষয় নিয়ে পড়াশুনো করতে পারবে। বিষয়গুলির পাঠ্যক্রম অনলাইনেই পাওয়া যাবে এবং অনলাইনেই ছাত্রছাত্রীরা এর ক্লাসগুলিও করতে পারবে। বিভিন্ন স্কুলেই বিষয়গুলির পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষাগুলি হবে মূলত প্রজেক্ট-ভিত্তিক। বোর্ডের নির্ধারিত নিয়ম মেনেই পরীক্ষার আয়োজন করবে স্কুলগুলি। ছাত্রছাত্রীরা ষষ্ঠ, সপ্তম বা অষ্টম শ্রেণিতে যে কোনও পাঠ্যক্রম পড়ার জন্য পছন্দ করতে পারবে।

সার্কুলারে আরও জানানো হয়েছে, নবম ও দশম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীরা ৩টি আবশ্যিক বিষয়ের সঙ্গে ১টি নিয়োগমুখী শিক্ষার বিষয় পড়লে, মোট নম্বর গণনার সময় 'বেস্ট ফাইভ'-এর মধ্যে ২টি ভাষা ছাড়া সর্বোচ্চ নম্বর আছে, এ রকম ৩টি বিষয়ের নম্বর গণনা করা হবে।

বোর্ড স্বীকৃত স্কুলগুলিকে নতুন কর্মমুখী শিক্ষার বিষয় বা পাঠ্যক্রম চালু করলে কোনও টাকা জমা দিতে হবে না। স্কুলগুলিকে এর জন্য শুধু 'অনলাইন অ্যাফিলিয়েটেড স্কুল ইনফরমেশন সিস্টেম' ফর্মটি পূরণ করে জমা দিতে হবে।

ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণির কর্মমুখী শিক্ষার বিষয়ের পাঠ্যক্রম, নমুনা প্রশ্নপত্র ইত্যাদি জানার জন্য পড়ুয়াদের সিবিএসই-র ওয়েবসাইট http://cbseacademic.nic.in/skill-education.html- এ নিয়োগমুখী শিক্ষার পেজে যেতে হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE