Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
WB Higher Secondary Exam 2023

উচ্চমাধ্যমিকে ‘কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশন’-এর কোন টপিক গুরুত্বপূর্ণ, পরামর্শ শিক্ষকের

গত বছরগুলির প্রশ্নপত্র এবং টেস্ট পেপার সমাধানের অভ্যাস করলে এমসিকিউ এবং এসএকিউ-এর প্রশ্ন ‘কমন’ পাওয়া যেতে পারে।

উচ্চমাধ্যমিকের ‘কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশন’ নিয়ে পরামর্শ শিক্ষকের।

উচ্চমাধ্যমিকের ‘কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশন’ নিয়ে পরামর্শ শিক্ষকের। প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৫ মার্চ ২০২৩ ১৬:৩০
Share: Save:

উচ্চমাধ্যমিকের বাণিজ্য শাখার অ্যাকাউন্টেন্সির পরীক্ষা ছিল ২৩ তারিখ। আগামী ২৭ তারিখ অর্থাৎ শেষ দিনে রয়েছে কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশনের পরীক্ষা। মাঝে রয়েছে আর একদিন। বিষয়টির প্রস্তুতি ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ হলেও সোমবারের পরীক্ষায় কোন টপিক গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে বা পরীক্ষার হলে উত্তর লেখার সময় কোন কোন জিনিস মাথায় রাখলে বেশি নম্বর পাওয়া যাবে, সেই সম্পর্কে বিশেষ পরামর্শ দিয়েছেন অভিজ্ঞ শিক্ষক।

বাণিজ্যের হিসাবশাস্ত্র বা অ্যাকাউন্টেসির সঙ্গে কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশনের মধ্যে বেশ খানিকটা তফাত রয়েছে নম্বর তোলার ক্ষেত্রে। অ্যাকাউন্টেসিতে থিওরির প্রশ্ন এড়িয়ে প্রবলেমের সমাধান করলেই বেশি নম্বর ওঠে। কিন্তু অন্যটিতে থিওরির প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে শুধুই প্রবলেমের সমাধান করলে বেশি নম্বর পাওয়া মুশকিল। তাই এই বিষয়ের ক্ষেত্রে এমসিকিউ, এসএকিউ ছাড়া বড় প্রশ্নের জন্য থিওরি পড়তে হবে।

প্রশ্নের ধরন ও গুরুত্বপূর্ণ টপিকঃ প্রথমে ১ নম্বরের এমসিকিউ এবং ২ নম্বরের এসএকিউ-এর প্রশ্ন থাকবে। এমসিকিউতে থাকবে সব মিলিয়ে ২৪ নম্বর এবং এসএকিউতে মোট ১২ নম্বর। ৩ নম্বর প্রশ্নে ‘এ’ এবং ‘বি’ দুটি বিভাগ মিলিয়ে মোট ৮ নম্বর থাকবে। ‘এ’-তে ‘স্টোর লেজার’- অধ্যায় থেকে প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। বিকল্প হিসাবে থাকবে থিওরির প্রশ্ন। যে হেতু এই অধ্যায়টি গত বছর সিলেবাসে ছিল না, তাই এখান থেকে ‘ফিফো’, ‘লিফো’, ‘সিম্পল এবং ওয়েটেড অ্যাভারেজ’-এর সব মেথড করতে হবে। ‘বি’-এর জন্য ‘কস্ট অফ লেবার’ থেকে থিওরির প্রশ্ন দেখে যেতে হবে। ৪ নম্বর প্রশ্নে ‘ডিফারেন্সিয়াল পিস রেট’-এর উপর টেলর বা মেট্রিকের প্রবলেম আসতে পারে। ৫ নম্বর প্রশ্নে ‘হ্যানসে ও রোয়ান’ পদ্ধতির উপর প্রশ্ন আসতে পারে। প্রতি ক্ষেত্রেই থিওরি এবং প্রবলেমের মধ্যে বিকল্প দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৬ নম্বর প্রশ্ন থকে ট্যাক্সের উপর প্রশ্ন থাকবে এই পরীক্ষায়। এর মধ্যে ‘এ’, ‘বি’ এবং ‘সি’ তিনটি ভাগ থাকবে। ‘এ’ বিভাগে ‘গৃহসম্পত্তি থেকে আয়’, এই অধ্যায় থেকে প্রশ্ন আসার সম্ভাবনা বেশি। অধ্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি হল- অনাদায়ী ভাড়া ছাড়ের শর্ত, পৌরকর ছাড়ের শর্ত এবং নিট বার্ষিক মুল্য থেকে ছাড়। ‘বি’ বিভাগের জন্য ‘মূলধনী লাভ’ অধ্যায়টি গুরুত্বপূর্ণ। এই অধ্যায় থেকে ‘দীর্ঘমেয়াদি মূলধনী সম্পত্তি’, ‘মূলধনী সম্পত্তির হস্তান্তর’, ‘করযোগ্যতার ভিত্তি’ এবং ‘স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদির পার্থক্য’ দেখে গেলে ভাল। ‘সি’ বিভাগের জন্য ‘অন্যান্য উৎস থেকে আয়’ অধ্যায়টির প্রবলেম গুরুত্বপূর্ণ। ৭ নম্বর প্রশ্নের জন্য ‘গৃহসম্পত্তি থেকে আয়’ অধ্যায়ের প্রবলেম গুরুত্বপূর্ণ। থিওরির প্রশ্ন থাকলেও প্রবলেমের উত্তর করলে মিলবে বেশি নম্বর।

যা যা মাথায় রাখা প্রয়োজনঃ

১. কস্টিং এবং ট্যাক্সের প্রবলেমের জন্য ছক কেটে উত্তর দিতে হবে পরীক্ষার্থীদের। এর জন্য পেন নয়, ব্যাবহার করতে হবে স্কেল এবং পেনসিল।

২. গত বছরগুলির প্রশ্নপত্র এবং টেস্ট পেপার সমাধানের অভ্যাস করলে এমসিকিউ এবং এসএকিউ-এর প্রশ্ন ‘কমন’ পাওয়া যেতে পারে।

৩. প্রবলেমের উত্তর এবং থিওরির উত্তরের গুরুত্বপূর্ণ অংশ নীল এবং কালো কালির পেন দিয়ে ‘আন্ডারলাইন’ করে দিতে পারলে ভাল।

(পরামর্শ দিয়েছেন চেতলা বয়েজ হাই স্কুলের সহকারী প্রধান তথা বাণিজ্য বিষয়ের শিক্ষক শুভ্র চক্রবর্তী।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE