Advertisement
০২ ডিসেম্বর ২০২২
West Bengal

বিএড পড়ার জন্য আবেদন জানাবেন? কী কী যোগ্যতা লাগবে জেনে নিন

এই বছর এই কোর্স আবেদন জানানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। আবেদন জানানোর শেষ তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর।

আবেদন জানানোর জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা

আবেদন জানানোর জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা সংগৃহীত ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২২:০০
Share: Save:

প্রতি বছর ওয়েস্ট বেঙ্গল ইউনিভার্সিটি অফ টিচার ট্রেনিং এডুকেশন প্ল্যানিং এন্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পশ্চিমবঙ্গে বি.এড প্রোগ্রামের আয়োজন করে। এই বছর এই কোর্স আবেদন জানানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। আবেদন জানানোর শেষ তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর।

Advertisement

এই কোর্সে ভর্তির জন্য আবেদন জানাতে গেলে পরীক্ষার্থীদের কিছু যোগ্যতার মাপকাঠি পূরণ করতে হবে। সেগুলি হল:

যোগ্যতা

১. আবেদনকারীকে কোনও স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্কুলে যে সমস্ত বিষয় পড়ানো হয়, সেই সমস্ত বিষয়ে স্নাতক হতে হবে।

Advertisement

২. আবেদনকারীদের স্নাতক বা স্নাতকোত্তরে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর থাকতে হবে আবেদন জানানোর জন্য।

৩. যাঁরা বিজ্ঞান বা অঙ্ক-সহ ইঞ্জিনিয়ারিং বা টেকনোলজিতে স্নাতক, তাঁদের ৫৫ শতাংশ নম্বর নিয়ে পাশ করতে হবে।

৪. এসসি/এসটি/পিডব্লিউডি পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে স্নাতক বা স্নাতকোত্তরে ৫ শতাংশ নম্বর ছাড় দেওয়া হয়।

যেই বিষয়গুলিতে বিএড করা যায়:

১. আরবি

২. বাংলা

৩. বাণিজ্য

৪. কম্পিউটার সায়েন্স

৫. অর্থনীতি

৬. শিক্ষা

৭. ইংলিশ

৮. ফাইন আর্টস

৯. ভূগোল

১০. হিন্দি

১১. ইতিহাস

১২. জীববিজ্ঞান

১৩. অঙ্ক

১৪. সঙ্গীত

১৫. দর্শন

১৬. ভৌতবিজ্ঞান

১৭. রাষ্ট্রবিজ্ঞান

১৮. মনস্তত্ব

১৯. সংস্কৃত

২০. সমাজবিদ্যা

২১. উর্দু

২২. হোম ম্যানেজমেন্ট

২৩. ফুড অ্যান্ড নিউট্রিশন

২৪.নেপালি

২৫.সাঁওতালি

আবেদনকারীদের উপরোক্ত বিষয়গুলির অন্তত একটি বিষয় মূল বিষয় হিসেবে গ্রাডুয়েশনে থাকতে হবে।

আসন সংরক্ষণ

ডেভিড হেয়ার ক্যাম্পাসের জন্য ইডাব্লিউএস/ এসসি/ এসটি/ ওবিসি/ পিডব্লিউডি পরীক্ষার্থীদের জন্য সরকারি নিয়ম অনুযায়ী আসন সংরক্ষণ করা হবে। অন্যদিকে সেলফ ফিনান্সড কলেজগুলিতে সংরক্ষণের এই নিয়ম প্রয়োগ হবে না।

নতুন আবেদনকারীদের জন্য ভর্তি প্রক্রিয়ার নিয়ম :

ভর্তির জন্য আবেদনকারীদের যে ভাবে নম্বর গণনা করা হবে, তা হল-

১.মাধ্যমিক বা সমতুল পরীক্ষায় ২০ নম্বর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

২. উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় ২০ নম্বর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

৩. গ্রাজুয়েশনে (জেনারেল/পাস) ২০ নম্বর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

৪. গ্রাজুয়েশনে (অনার্স) ৩০ নম্বর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

৫. বিই বা বিটেক ডিগ্রির ক্ষেত্রে ৩০ নম্বর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

৬.মাস্টার্সে ৩০ নম্বর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

এ ছাড়া এম.ফিলের নম্বর সরাসরি যোগ করা হবে।

ডেপুটেড আবেদনকারীদের জন্য ভর্তি প্রক্রিয়ার নিয়ম :

ডেপুটেড আবেদনকারীদের এমসি বা এসএমসি রেজল্যুশনের একটা প্রত্যয়িত কপি জমা দিতে হবে। এ ছাড়াও বি.এড কোর্স শুরু করার দিনে নিম্নোক্ত নথিগুলি জমা দিতে হবে:

১. স্কুলের প্রধান শিক্ষক বা শিক্ষিকার থেকে রিলিজ অর্ডার

২. স্কুলের ডিআই-কে দিয়ে স্বাক্ষর করানো এমসি রেজল্যুশনের প্রত্যয়িত কপি

৩. শিক্ষক যে ষষ্ঠ শ্রেণি বা তার চেয়ে উঁচু শ্রেণিতে পড়ান সেটির একটি শংসাপত্র

৪. তিনটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি

৫. পূরণ করা ডেপুটেশন ফর্ম

৬. তিনি যে স্কুলে পড়াতেন এবং তাঁকে যে স্কুল থেকে বিএড করতে ডেপুটেশনে পাঠানো হয়েছে তার একটি শংসাপত্র

তাই আবেদন জানানোর আগে উপরোক্ত তথ্যগুলি জেনে নিয়ে বিএড কোর্সের জন্য আবেদন জানান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.