Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

শুভেন্দুর মঞ্চে ‘নাটক’, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে গিয়ে ওঠবস করে ‘প্রায়শ্চিত্ত’

নিজস্ব সংবাদদাতা
পিংলা ০৩ মার্চ ২০২১ ২৩:৩৩
মঞ্চে তখন ওঠবস করছেন সুশান্ত পাল।

মঞ্চে তখন ওঠবস করছেন সুশান্ত পাল।
নিজস্ব চিত্র।

তৃণমূলে থাকাকালীন ‘অজস্র ভুল’ করেছেন। তাই ‘যোগদান মেলা’র মঞ্চে উঠে, বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সামনে কান ধরে ওঠবস করে ‘প্রায়শ্চিত্ত’ করলেন এক দলত্যাগী। বুধবার এমনই নাটকের সাক্ষী থাকল খড়গপুরের পিংলা। জোড়াফুল ছেড়ে পদ্মে যাওয়া ওই নেতার কাণ্ড নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছে তৃণমূল।

বুধবার খড়গপুরের পিংলায় চলছিল সভা ছিল শুভেন্দুর। ওই মঞ্চেই বিজেপি-তে যোগ দেন সুশান্ত পাল নামে তৃণমূলের এক নেতা। তাঁকে যখন ডাকা হয় তখনই তৈরি হয় নাটকীয় পরিস্থিতি। সুশান্ত হাতে মাইক্রোফোন তুলে নিতেই সকলে ভাবতে থাকেন, কেন তিনি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দিলেন, তা নিয়ে কিছু বলবেন। কিন্তু আচমকাই কান ধরে ওঠবস করতে শুরু করেন তিনি। ঘটনার আকস্মিকতায় হতচকিত হয়ে পড়েন অনেকেই। তৃণমূলে থাকাকালীন জেলা সভাপতি অজিত মাইতির ‘ঘনিষ্ঠ’ বলে পরিচিত ছিলেন সুশান্ত। শুভেন্দুর ‘অনুগামী’ হিসাবেও তাঁকে চিনতেন দলীয় কর্মী এবং সমর্থকরা। মঞ্চে সেই ‘অনুগামী’র কীর্তি দেখে মুখ ফিরিয়ে নিতে দেখা যায় শুভেন্দুকেও। ৪ বার ওঠবস করার পর থামেন সুশান্ত। এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেন, ‘‘তৃণমূলকে জেতানোর জন্য যা করেছিলাম তা ঠিক করিনি। তাই কান ধরে ওঠবস করে তার প্রায়শ্চিত্ত করে বিজেপি-তে যোগ দিলাম।’’

ওই ঘটনায় প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে, অজিত মাইতি বলেন, ‘‘বিজেপির সংস্কার, মঞ্চে কারও পা ধরে তবে দলে যোগ দিতে হবে। আবার কখনও কান ধরে বা ওঠবস করলে তবেই যোগদান করা যাবে। সেই মাফিকই ঘটনা ঘটেছে।’’ তাঁর দাবি, ‘‘সুশান্তকে ৪ বছর আগে দল থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। ও কোনও ভাবেই আমার ঘনিষ্ঠ নয়।’’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement