Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Bengal Polls: ময়নায় তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে হামলা, অভিযোগ অস্বীকার বিজেপি-র

পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না থানার গোজিনা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় মঙ্গলবার রাতে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর হয়।

নিজস্ব সংবাদদাতা
ময়না ২৪ মার্চ ২০২১ ১১:০৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর।

তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর।
নিজস্ব চিত্র।

Popup Close

পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না থানার গোজিনা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় মঙ্গলবার রাতে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর হয়। এই ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে ওই এলাকায়। তৃণমূলের অভিযোগ, কিয়ারানায় পথসভা না করার জন্য হুমকি দিয়েছিল বিজেপি। তা উপেক্ষা করে সভা করার জন্যই ভাঙচুর চালানো হয়েছে দলীয় কার্যালয়ে। যদিও সে অভিযোগ অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি। অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার রাতেই ঘটনাস্থলে পৌছয় বিশাল পুলিশ বাহিনী।

ময়নার এলাকার তৃণমূল নেতা বীরেশ্বর পান্ডার অভিযোগ, ‘‘বিজেপি বারবার হুমকি দিচ্ছিল, এই এলাকায় তৃণমূলের কোনও সভা বা প্রচার করা যাবে না। সেই হুমকি উপেক্ষা করে পুলিশের অনুমোদন নিয়ে আমরা পথসভা করি। সভা শেষে সবাই যখন বাড়ি ফিরছিলাম সেই সুযোগে বিজেপি-র দুষ্কৃতীরা দলীয় কার্যালয়ে ঢুকে তাণ্ডব চালায়।” চেয়ার, আসবাবপত্র-সহ সভায় ব্যবহৃত মাইকও ভেঙে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি বীরেশ্বরের।

অন্যদিকে গোটা ঘটনায় বিজেপি-র কেউ জড়িত নয় বলে দাবি করেছেন ময়নার বাসিন্দা এবং বিজেপি-র তমলুক সাংগঠনিক জেলা সহ-সভাপতি আশিস মণ্ডল। তাঁর পাল্টা অভিযোগ, ‘‘মঙ্গলবার ময়নায় বিজেপি-র একটি রোড শো ছিল। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার সময় বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা চালানো হয়। এই হামলার ঘটনা থেকে নজর ঘোরাতেই নিজেদের কার্যালয় ভেঙেছে তৃণমূল।’’ তাঁর অভিযোগ, ওই এলাকার বিজেপি-র ৩টি কার্যালয়েও ভাঙচুর চালিয়েছে তৃণমূল।

Advertisement

দলীয় কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনায় ইতিমধ্যেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূল। তবে এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি বলে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে। দলীয় কার্যালয় ভাঙচুরের দাবি করলেও বিজেপি অবশ্য পুলিশে অভিযোগ জানায়নি। এ ব্যাপারে আশিস জানিয়েছেন, কাঁথিতে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় যোগ দিতে এসেছেন তাঁরা। সভা থেকে ফিরেই পুলিশে অভিযোগ জানানো হবে।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement