Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

নাম না করে অনুব্রত মণ্ডলকে নিশানা সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর

নিজস্ব সংবাদদাতা
বোলপুর ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:১১
সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী।

সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী।
ফাইল চিত্র।

বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে এ বার সরব হলেন দলেরই মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। যদিও সরাসরি অনুব্রতের নাম নেননি পূর্ব-বর্ধমানের মঙ্গলকোটের বিধায়ক সিদ্দিকুল্লা।

বৃহস্পতিবার সিদ্দিকুল্লা বলেন, ‘‘মঙ্গলকোটের মাটি উত্তপ্ত, বীরভূম থেকে গরম খাওয়ানো হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছি, মঙ্গলকোট থেকে বিধানসভা ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করব না।’’ তবে রাজ্যের গ্রন্থাগার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা বর্ধমান জেলার ভুমিপুত্র হিসাবে ওই জেলা থেকেই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চান। তাঁর কথায়, ‘‘আমি আমার কথা মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়ে দিয়েছি।’’

জেলা সার্কিট হাউসে এক সাংবাদিক সম্মেলনে সিদ্দিকুল্লা জানান, বিধায়ক তহবিল থেকে চারটি চুল্লি তৈরির পরিকল্পনা তিনি করেছিলেন। কিন্তু দলেরই কিছু ব্যক্তি ক্ষমতার অপব্যবহার করে সেই কাজ করতে দেয়নি বলেও অভিযোগ জানান মন্ত্রী।

Advertisement

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে আব্বাস সিদ্দিকির ইন্ডিয়ান কোনও ফ্যাক্টর হবে না বলেও দাবি করেন সিদ্দিকুল্লা। তাঁর কথায়, ‘‘ফুরফুরা শরিফ রাজনৈতিক জায়গা নয়। গত একশো বছরের ইতিহাসে ফুরফুরা শরিফ কখনো রাজনৈতিক ভাবে সামনে আসেনি। আব্বাস এখন পরের হাতের তামাক খাচ্ছেন।’’ পাশাপাশি, আসাদউদ্দিন ওয়েইসির ‘মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন’ (মিম)-কে ‘হায়দরাবাদের উড়ন্ত পাখি’ বলেও কটাক্ষ করেন তিনি। তবে সিদ্দিকুল্লার মন্তব্যের বিষয়ে বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল কিছু বলতে অস্বীকার করেন।

আরও পড়ুন

Advertisement