অনিন্দ্য পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়। এ নামের সঙ্গে আপনি পরিচিত। টেলিভিশন হোক বা বড়পর্দা। বহু কাজ করেছেন তিনি। শুধু টলিউড নয়, সুজয় ঘোষের ‘কহানি’র মতো বলিউডি প্রজেক্টও রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। এ হেন অনিন্দ্যকে অভিনেতা হিসেবে তো আপনি চেনেন। কিন্তু পরিচালক অনিন্দ্য? তাঁর সেই সত্তার খোঁজ রাখেন কি?

ইতিমধ্যেই ‘স্মাগ’, ‘ওয়াচমেকার’-এর মতো ছবি পরিচালনার দায়িত্ব সামলেছেন অনিন্দ্য। এ বার তৃতীয় ছবি ‘কোভেট লেটার’-এর কাজ শুরু করবেন। ইংরেজি এবং ইউক্রেনের ভাষার এ ছবির শুটিং শুরু হবে ফেব্রুয়ারির শুরুতেই।

ছবির বিষয় কী? পরিচালক জানালেন, সাম্প্রতিক অতীতে দেশে নাগরিকত্ব নিয়ে যে তীব্র অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে, তা নিয়েই এই ছবি। ভূমিপুত্রদের কী ভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে, তার গল্পই বলবে এ ছবি। ‘‘এ ছবির প্রধান চরিত্র লেটার। এটাই চরিত্রের নাম। আসলে নির্দিষ্ট নাম রাখতে চাই না। কারণ সেটা হলে ভাষা, দেশ, কাল ডিফাইন করে। এই লেটার পেশায় ব্লগার। বাংলায় কিছু কথা বলে। কিন্তু ভারতীয় না বাংলাদেশি তা উহ্য থাকে,’’ শেয়ার করলেন অনিন্দ্য।

আরও পড়ুন, ‘বাংলা সিনেমা দেখি না,বাঙালি হিসেবে বলাটা খুব লজ্জার’

ভারতে নিরাপত্তার অভাব বোধ করায় ইউক্রেনে এক বান্ধবীর কাছে পালিয়ে যায় লেটার। দু’মাস থাকার পর সে দেশের গোয়েন্দাদের হাতে ধরা পড়ে দু’জনেই। শাস্তি দেওয়ার জন্য দু’জনকে সম্পূর্ণ নগ্ন করে বাঙ্কারে ঢুকিয়ে দেয় সে দেশের সরকার। ভারতীয় দূতাবাস সে খবর পেয়ে এক আইনজীবীকে গোটা পরিস্থিতি সরেজমিন দেখতে পাঠায়। তার পর?...এ ভাবেই এগিয়েছে চিত্রনাট্য।


মুমতাজ সরকার এবং জুলিয়া বারকোভা।

হঠাত্ এই বিষয় নিয়ে ছবি করছেন কেন? অনিন্দ্যর ব্যাখ্যা: ‘‘ভারত হিন্দুদেরই হতে হবে, ব্যক্তিগত ভাবে এই ধারণায় আমি বিশ্বাস করি না। এখানে সব ধর্মের মানুষের থাকার অধিকার রয়েছে। আসলে দর্শক কিছু জানে না, এটা ভাবার কোনও মানে নেই। আজগুবি গল্প নিয়ে লোকে কেন ছবি করে? আর ব্যবসা করার জন্য ছবি করতে আসিনি আমি। তবে আমাকে নিয়ে ব্যবসা করলে তাতে কোনও আপত্তি নেই। সিনেমা নিয়ে যাঁরা পড়াশোনা করছেন বা নতুন যাঁরা সিনেমা করতে আসছেন, তাঁদের কাছে আমার ছবি পৌঁছে দিতে চাই।’’

চলতি ছকের বাইরে সিনেমা করছেন। নতুন পরিচালকদের প্রযোজক পাওয়ার ক্ষেত্রে বহু সমস্যার কথা শোনা যায় ইন্ডাস্ট্রিতে। কিন্তু অনিন্দ্য সেই সমস্যা মানতে নারাজ। তাঁর দাবি, ‘‘কনটেন্টের জোর থাকলে প্রযোজক পেতে অসুবিধে হয় না।’’  

আরও পড়ুন, ‘সবাই দেখা হলে বলেন, খুব ভাল অভিনয় কর, কিন্তু কেউ ডাকেন না’

এ ছবিতে অনিন্দ্য অভিনয়ও করছেন। পাশাপাশি ইতালিয়ান মডেল জুলিয়া বারকোভা, মুমতাজ সরকারের মতো শিল্পীর অভিনয়ে সমৃদ্ধ হবে এই ছবি। অনিন্দ্যর মেয়ে ঐশিকা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও দেখা যাবে একটি চরিত্রে।

গল্প বলার ভঙ্গিতে সিনেমা তৈরি করতে চান অনিন্দ্য। ‘ফিল্ম উইজার্ড আপ টেম্পো’ প্রযোজিত এই ছবিতে ক্যামেরার দায়িত্বে মধুরা পালিত। সম্পাদনা সামলাবেন প্রণয় দাশগুপ্ত এবং গানঘর থাকছে চিরন্তন বন্দ্যোপাধ্যায়ের দায়িত্বে।

(সেলেব্রিটি ইন্টারভিউ, সেলেব্রিটিদের লাভস্টোরি, তারকাদের বিয়ে, তারকাদের জন্মদিন থেকে স্টার কিডসদের খবর - সমস্ত সেলেব্রিটি গসিপ পড়তে চোখ রাখুন আমাদের বিনোদন বিভাগে।)